চাপাতি দিয়ে মুন্ডু কেটে রাস্তায় উল্লাস!

শনিবার দুপুরে রাস্তায় প্রচুর ভিড়। হঠাৎ করেই একটি দোকানের পাশে দেখা গেল, এক ব্যক্তি রাস্তায় পড়ে আছেন। ধড়-মুন্ডু আলাদা।

ফিনকি দিয়ে রক্ত বের হচ্ছে। পাশে চাপাতি হাতে দাঁড়িয়ে রয়েছে এক যুবক! আর এই দৃশ্য দেখে হকচকিয়ে যায় পথচারীরা! ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের কলকাতার রাজাবাগান এলাকার সিমপুকুর লেন।

তাদেরই মধ্যে বশির নামের এক যুবক চাপাতি হাতে ওই যুবককে আটকাতে যান। তার হাতেও পড়ে চাপাতির কোপ। পরিস্থিতি এতটাই ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠে যে, এলাকায় বিশাল পুলিশ বাহিনী মোতায়েন করতে হয়।

মৃতের নাম ইশামুল হক ওরফে চুন্নু মিঞা (৪৮)। তার বাড়ি শ্যামপুকুর এলাকায়। এই ঘটনায় গ্রেফতার করা হয় কালাম কুরেশি নামে এক ব্যক্তিকে। কেন তাকে এভাবে মাঝ রাস্তায় গলা কেটে খুন করা হলে, তা নিয়ে ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছে।
জানা গেছে, পুরনো শত্রুতার কারণেই চুন্নুকে খুন করা হয়েছে। অভিযুক্ত যুবককে উত্তেজিত জনতা মারধর করে।

পরে তাকে নিয়ে যাওয়া হয় কলকাতা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। সেখানে তিনি জানিয়েছেন, তার স্ত্রীকে নাকি উত্যক্ত করতেন চুন্নু মিঞা। তাই তাকে খুন করেছেন। আনন্দবাজার।

loading...

৭ ই মার্চ কথাটি শুনলেই মনের ভিতর জেগে উঠে একটি স্পন্দন। একটি বাজনা, একটি হুঙ্কার ও মুক্তির দমামা।মনে পড়ে যায় অসংখ্য প্রিয়জন হারানোর বেদনা ।

মানুষজন একটি দিনের ভাষণকে মনে কর... Read More