ডেসটিনি চেয়ারম্যান-এমডির জামিনের শর্ত ২৫০ কোটি টাকা

দুদুকের করা মামলায় আড়াই হাজার কোটি টাকা জমা দেয়ার শর্তে জামিন পেতে পারেন ডেসটিনি গ্রুপের চেয়ারম্যান রফিকুল আমিন ও এমডি মোহাম্মদ হোসেন। 

প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বে আপিল বিভাগের তিন সদস্যের বেঞ্চ আজ এ সংক্রান্ত আপিল আবেদন শুনানি শেষে এই রায় দিয়েছেন।


 অপর দুই বিচারক হচ্ছেন বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন এবং মির্জা হোসেইন হায়দার।

আদালতে দুদকের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী খোরশেদ আলম খান। অপরদিকে আসামী পক্ষে শুনানিতে অংশ নেন ব্যারিস্টার আজমালুল হোসেন কিউসি।

আইনজীবী খোরশেদ আলম খান জানান, শুনানিকালে আদালত আসামী পক্ষের কাছে ট্রি প্লান্টেশন প্রকল্পের নামে সংগৃহীত অর্থের বিষয়ে জানতে চান। 


এ সময় আসামী পক্ষ জানান, দেশের বিভিন্ন স্থানে ‘ট্রি প্লান্টেশন প্রকল্পের আওতায় ডেসটিনির ৩৫ লাখ গাছ রয়েছে। যা বিক্রি করলে প্রায় ২৮০০ কোটি টাকা পাওয়া যাবে।

এ সময় আদালত আগামী ৬ সপ্তাহের মধ্যে ওই গাছ বিক্রি করে পুরো টাকা না হলেও অন্তত ২৫০০ কোটি টাকা বাংলাদেশ ব্যাংকের মাধ্যমে সরকারের ট্রেজারি ফান্ডে জমা দেয়ার শর্তে জামিন দেয়া যেতে পারে বলে জানান।

একই সঙ্গে আদালত গাছ বিক্রি সংক্রান্ত যাবতীয় কাগজপত্রে আসামীদের স্বাক্ষরের সুযোগ দিতেও কারা কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেন।

loading...

৭ ই মার্চ কথাটি শুনলেই মনের ভিতর জেগে উঠে একটি স্পন্দন। একটি বাজনা, একটি হুঙ্কার ও মুক্তির দমামা।মনে পড়ে যায় অসংখ্য প্রিয়জন হারানোর বেদনা ।

মানুষজন একটি দিনের ভাষণকে মনে কর... Read More