পরকিয়ায় রাজি না হওয়ায় স্বামী পরিত্যক্ত দু-সন্তানের জননীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা

Mrinal chowdhury saykat

টঙ্গীর বনমালা এলাকায় পরকিয়া প্রেমে রাজি না হওয়ায় দু-সন্তানের জননীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করেছে স্থানীয় সত্তোর উর্দ্ধ এক নারী লোভী বৃদ্ধ ।

জানা যায়, রোববার (১৬ মে) সকালে ওই এলাকার বনমালা হাউজবিল্ডিংস্থ জনৈক শাহাদতের বাসার সামনে এই ঘটনা ঘটে। নিহত স্বপ্না বেগম (৩৫) টঙ্গীর বনমালা হাউজবিল্ডিংয়ের একটি বাসায় দুই মেয়েকে নিয়ে বসবাস করতেন।

খবর পেয়ে টঙ্গী পূর্ব থানা পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছে।

নিহত স্বপ্নার ভাই হাসেম আলী জানায়, প্রায় ১৪ বছর আগে স্বপ্না বেগমের সাথে তুহিন নামে একজনের সাথে বিয়ে হয়, বিয়ের পর এক কন্যা সন্তান রেখে তুহিন চলে যায় । ওই কন্যার বয়স বর্তমানে ১৩ বছর। পরে স্বপ্নার দ্বিতীয় বিয়ে হলে তারও ইতি ঘটে মনিরের সাথে ২ বছর আগে। সেখানেও ৩ বছরের একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। দুই মেয়েকে নিয়ে স্বপ্না বনমালা হাউজ বিল্ডিং এলাকায় বসবাস করতো । ঘটনার দিন সকালে নিজ বাসায় রান্না শেষ করে বাইরে বের হলে একই এলাকায় বসবাসকারী সাইকেল দোকানদার ইয়াজউদ্দিন (৭০) তাকে ছোরাকাঘাত করে পালিয়ে যায়। স্থানীয়রা জানান, ওই নারী অভাবের তাড়নায় অন্যের বাড়িতে কাজ করতেন । স্বামী পরিত্যক্ত হওয়ায় নারীলোভী ইয়াজউদ্দিন বিভিন্ন সময় স্বপ্নাকে রাস্তায় উত্ত্যক্ত করতো ।

সর্বশেষ ওই নারীকে বিয়ের প্রস্তাব দিলে সে রাজি না হওয়ায় ক্ষীপ্ত হয়ে ইয়াজউদ্দিন রোববার সকালে ওই নারীকে রাস্তায় একা পেয়ে দিনের বেলা ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়।

পরে এলাকাবাসী স্বপ্নাকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনার সাথে জড়িত হত্যাকারীকে গ্রেপ্তারের চেস্টা চলাচ্ছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

টঙ্গী পূর্ব থানার অফিসার্স ইনচার্জ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন ।

টঙ্গী (গাজীপুর)প্রতিনিধি