‘সিডস ফর দ্য ফিউচার’ এর এশিয়া প্যাসিফিক ফাইনাল রাউন্ডে বাংলাদেশের ৪ শিক্ষার্থী Four Bangladeshi Students are Going to Compete in the ‘Seeds For the Future’ APAC Final Round

‘সিডস ফর দ্য ফিউচার’ -এর এশিয়া-প্যাসিফিক ফাইনাল রাউন্ডে বাংলাদেশের ৪ শিক্ষার্থী

Generic placeholder image
  Ashfak

‘সিডস ফর দ্য ফিউচার’ প্রতিযোগিতার এশিয়া-প্যাসিফিক ফাইনাল রাউন্ডে অংশ নিতে যাচ্ছে বাংলাদেশের চার শিক্ষার্থী। প্রতিযোগিতার থাইল্যান্ড রাউন্ডে অংশগ্রহণকারী আট প্রতিযোগীর মধ্য থেকে এই চার জনকে বাছাই করা হয়। এ শিক্ষার্থীরা সিঙ্গাপুরে অনুষ্ঠেয় ‘টেকফরগুড অ্যাকসেলেরেটর ক্যাম্প’ শীর্ষক ফাইনাল রাউন্ডে অংশগ্রহণ করবেন।

বাংলাদেশ থেকে অংশগ্রহণকারী ৪ জন শিক্ষার্থী হচ্ছেন: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শাদমিন সুলতানা, ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির মোহসিনা তাজ, আইইউটি বাংলাদেশের ওয়াসিফা রহমান রেশমি ও মো. সুমিত হাসান। এ বছরের জুলাইয়ে নয় জন বিজয়ী বাছাই করার মধ্যে দিয়ে শেষ হয় ‘সিডস ফর দ্য ফিউচার ২০২২ বাংলাদেশ’প্রতিযোগিতা। বিজয়ী প্রতিযোগীরা পরবর্তী রাউন্ডে অংশ নিতে গত ১৮ আগস্ট থাইল্যান্ডের উদ্দেশ্যে যাত্রা করেন। থাইল্যান্ড রাউন্ডে অংশগ্রহণকারী চব্বিশটি দলের মধ্যে, বাংলাদেশি ‘টিম ইথার’তাঁদের প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থান অধিকার করেছে এবং সিঙ্গাপুরে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া ‘টেকফরগুড অ্যাকসেলেরেটর ক্যাম্প’শীর্ষক চূড়ান্ত পর্বে অংশগ্রহণের যোগ্যতা অর্জন করেছে।

টেকফরগুড অ্যাকসেলেরেটর ক্যাম্পে প্রতিযোগীরা বিজনেস অপারেশন এবং আইসিটি খাতের মেন্টরদের সাথে সরাসরি যোগাযোগ করার সুযোগ পাবেন এবং তাদের কাছ থেকে বাস্তবধর্মী ধারণা লাভ করতে পারবেন। এতে করে তারা কীভাবে একটি ব্যবসা পরিচালিত হয় সে বিষয়ে জানার সুযোগ পাবেন। পাশাপাশি, তাদের ব্যবসা-সংক্রান্ত দক্ষতা বৃদ্ধি পাবে, যার মাধ্যমে তারা সফলভাবে প্রকল্পের পরিকল্পনা করতে সক্ষম হবেন। এছাড়াও, অ্যাকসেলেরেটর ক্যাম্পে অংশগ্রহণকারীদের এশিয়ার শীর্ষস্থানীয় উদ্যোক্তা ও বিনিয়োগকারীদের সাথে দেখা করার সুযোগ তৈরি হবে, যারা প্রতিযোগীদের পেশাগত প্রকল্পগুলোর ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় পরামর্শ দিবেন। ক্যাম্পের এসব বিষয় বিবেচনায় রেখে প্রতিযোগীরা তাদের প্রকল্পগুলো তৈরি করবেন। উপস্থাপন করা প্রকল্পগুলোর মধ্য থেকে সম্ভাবনার ভিত্তিতে বিজয়ী নির্বাচন করা হবে।

এ নিয়ে হুয়াওয়ে টেকনোলোজিস (বাংলাদেশ) লিমিটেডের বোর্ড মেম্বার জেসন লিজংশেং বলেন, “বিশ্বের মেধাবী শিক্ষার্থীদের খুঁজে বের করে এবং প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষতা বৃদ্ধি করে তাদের ভবিষ্যত সমৃদ্ধি নিশ্চিত করতে সিডস ফর দ্য ফিউচার প্রতিযোগিতাটির আয়োজন করা হয়েছে। অ্যাকসেলেরেটর ক্যাম্পটি প্রতিযোগীদের জন্য একটি অমিত সম্ভাবনা হিসেবে কাজ করবে, যেখান থেকে তারা বিশেষজ্ঞদের কাছ থেকে সরাসরি শিখতে পারবেন এবং আইসিটি সম্পর্কিত বাস্তব জ্ঞানে নিজেদের সমৃদ্ধ করতে পারবেন।”

তরুণদের ভবিষ্যতমুখী দক্ষতা বৃদ্ধিতে এবং দক্ষ জনশক্তির ওপর নির্ভর করে দেশকে এগিয়ে নিতে, আইসিটি স্কিলস কম্পিটিশন এবং সিডস ফর দ্য ফিউচার’র মতো বিভিন্ন কর্মসূচির আয়োজন করছে হুয়াওয়ে টেকনোলোজিস (বাংলাদেশ) লিমিটেড।
 

মন্তব্য করুন হিসাবে:

মন্তব্য করুন (0)