২০১২ সালের প্লান নিয়েই চলছে টঙ্গীতে বহুতল বাড়ি নির্মাণের হিড়িক

Tongi Planbihin Bari Nirman

সাবেক টঙ্গী পৌরসভা কর্তৃক প্রদত্ত ২০১২ সালের প্লান নিয়ে বর্তমান গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের টঙ্গীর বিভিন্ন এলাকায় বহুতল বাড়ি নির্মাণের হিড়িক পড়েছে। সিটি কর্পোরেশনের টঙ্গী অঞ্চলে কর্মরত একটি অসাধু চক্র মোটা অঙ্কের অর্থের বিনিময়ে নকল প্লান বানিয়ে জনসাধারনের কাছে বিক্রি করছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

এতে করে বাড়ির কাজ করতে গিয়ে হয়রানির শিকার হচ্ছেন অনেকে। সিটি কর্তৃপক্ষ বিষয়টি গুরুত্ব না দেওয়ায় যে হারে ঝুকিপূর্ন ভবনের সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে, ঠিক তেমনি ঝুকিপূর্ন হয়ে উঠছে নগরবাসীর জীবন।
সরেজমনি ঘুরে জানা যায়, টঙ্গীতে ২০১২ সালে তৎকালীন টঙ্গী পৌরসভার মেয়রের স্বাক্ষরিত প্লান বর্তমানে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের টঙ্গী অঞ্চলের কতিপয় অসাধু কর্মকর্তার সাথে যুক্ত একটি চক্র নকল নকশা তৈরী করে ৫০ হাজার থেকে লাখ টাকার বিনিময়ে বাড়ি নির্মাতাদের প্রদান করছেন।

ক্রয়কৃত এ নকল নকশা মাধ্যমেই নির্মাণ করছেন বহুতল ভবন। ফলে বহুতল বাড়ি নির্মাণের সংখ্যা নিয়ম বহির্ভূত প্রতিনিয়ত আশংকাজনক হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে। টঙ্গীর শিলমুন, জামবুড়ারটেক, গোপালপুর, মরকুন, আরিচপুর, আউচপাড়া, দেওড়া, মুদাফা, দত্তপাড়া, গাজীপুরা, সাতাইশ, এরশাদনগরসহ বিভিন্ন এলাকায় নির্মিত এবং নির্মানাধীন অসংখ্য ঝুকিপূর্ণ ও নিয়মবর্হিভূত ভবন রয়েছে।
পাগাড় সালামের আটারকল এলাকায় সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলরের বাড়ির সামনেই ৩ তলার প্লান নিয়ে সাড়ে ৬ তলা বিশিষ্ট বাড়ি নির্মান করেছেন এক ব্যক্তি। যে বাড়িটি ঘেষে ১/২ ফুটের মধ্যে এক পাশে ১১ হাজার আর বাড়ির উপরে রয়েছে ৩৩ ভোল্টেজবাহিত বৈদ্যুতিক তার রয়েছে। গত ৩ এপ্রিল এ বাড়িতে নির্মান কাজ করার সময় বিদ্যুৎ স্পর্শে রফিক (২২) নামে এক যুবকের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়।
শিলমুন এলাকায় বসবাসরত বিমান বাহিনীর (অবসর প্রাপ্ত এফ এম এস) মোফাজ্জল হোসেন এবং প্রবাসী জয়নাল আবেদীন ও তার স্ত্রী রেহেনা বেগম মিলে প্রায় দুই মাস পূর্বে মোটা অঙ্কের টাকার বিনিময়ে ২০১২ সালের সাবেক টঙ্গী পৌর মেয়র আজমত উল্লা খানের স্বাক্ষর সম্বলিত প্লান নিয়ে স্থানীয় আঃ বাতেন নামের এক ব্যক্তির সার্বিক সহায়তায় ৬তলা ভবনের নির্মাণ কাজ শুরু করেন।
এ বিষয়ে জানতে সরজমিনে গেলে একই এলাকার মোজাম্মেল হকের বাড়ির ঠিকাদার আব্দুল বাতেন বলেন, প্লান ছাড়া এবং ভুয়া প্লানে এলাকায় বহু বাড়ি রয়েছে, আমরাও করছি তাতে আপনার কি।

আমরা এলাকার এবং এ সমাজের লোক। একটা কাজ করে কিছু টাকা পয়সা পাচ্ছি এতে আপনাদের সমস্যা কোথায় ? যারা এসব ভুয়া প্লান দিচ্ছে তাদেরকে না ধরে আমাদের কেন ডিষ্টাব করছেন ?
এবিষয়ে টঙ্গী ৪৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সাদেক আলীর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ভূয়া প্লানে বাড়ি নির্মাণ করায় জাম্বুরারটেক এলাকায় মোজাম্মেল ও জয়নাল আবেদীনের বাড়ির নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।
এব্যাপারে টঙ্গী জোনের আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা এস এম সোহরাব হোসেন এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ভূয়া প্লানে বাড়ি নির্মাণের বিষয়টি তিনি শুনেছেনে, অভিযোগ পেলে ওই কাজ বন্ধ দেয়া কওে হবে।

গত কয়েকদিন পূর্বে পাগাড় এলাকায় কালা চাঁন ঘোষের বাড়ির প্লান দেখাতে না পারায় সিলগালা করে দেয়া হয়েছে বলেও তিনি দাবী করেন।
মৃণাল চৌধুরী সৈকত, টঙ্গী