স্ত্রীর পরুষ আসক্তি ঠেকাতে না পেরে থানায় গেল স্বামী

The husband went to the police station to stop his wife male addiction

কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া উপজেলায় স্ত্রীর বিরুদ্ধে একাধিক অনৈতিক সম্পর্কের অভিযোগ এনে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন স্বামী। পাকুন্দিয়া থানায় ওই নারীর স্বামী আবদুর রশিদ মঙ্গলবার (১৭ নভেম্বর) বিকেলে স্ত্রীসহ চারজনকে অভিযুক্ত করে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। অভিযুক্তরা হলেন-স্ত্রী মমতাজ বেগম, তার বাবা আইনউদ্দিন, ভাই জালাল উদ্দিন ও সবুজ মিয়া।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, প্রায় ১৫ বছর আগে উপজেলার দিগাম্বর্দী গ্রামের হাসিম উদ্দিনের ছেলে আবদুর রশিদের সঙ্গে পারিবারিকভাবে পার্শ্ববর্তী মধ্যমান্দারকান্দি গ্রামের আইন উদ্দিনের মেয়ে মমতাজ বেগমের বিয়ে হয়।

তাদের দাম্পত্য জীবনে দুই ছেলে রয়েছে। কিন্তু বিয়ের ৫-৬ বছর পর থেকে বিভিন্ন পরপুরুষের সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন স্ত্রী মমতাজ। এ নিয়ে শ্বশুরবাড়ির লোকজনের কাছে বিচার প্রার্থী হন আবদুর রশিদ।

কিন্তু শ্বশুরবাড়ির লোকজন এ বিষয়ে স্ত্রীর কোনো বিচার করতে পারেনি। গত ১ নভেম্বর রাতে ফের পাশের বাড়ির এক যুবকের সঙ্গে অনৈতিক কাজের সময় স্ত্রীকে হাতেনাতে ধরে ফেলেন আবদুর রশিদ।

এ নিয়ে গত ৫ নভেম্বর স্থানীয় বুরুদিয়া ইউপি চেয়ারম্যান নাজমুল হুদা রুবেল ও মেম্বার হাফিজ উদ্দিনসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে সালিশ বৈঠক হয়। কিন্তু এতেও কোনো কাজ হয়নি।

আরও পড়ুনঃ কিশোরীকে গণধর্ষণের মামলায় আটক দুলাভাই-শ্যালিকা

স্বামী আবদুর রশিদ আরও বলেন, আমি একজন দরিদ্র মানুষ। শুঁটকি মাছ বিক্রি করে সংসার চালাই। আমার সংসারে দুটি ছেলে আছে। এরপরও আমার স্ত্রী অন্য লোকজনের সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্ক গড়ে তুলেছে। কোনোভাবেই তাকে এ কাজ থেকে ফেরানো যাচ্ছে না। তাই বাধ্য হয়ে থানায় তার বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দিয়েছি।

পাকুন্দিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. আবদুল কুদ্দুছ অভিযোগের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, তদন্ত সাপেক্ষে এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।