সুবিধাবঞ্চিত নারী ও কিশোরীদের জন্য চ্যারিটি অনুষ্ঠান আয়োজন করলো ডিপিএস এসটিএস স্কুল  DPS STS School Dhaka organizes Charity Fest for underprivileged women and girls

সুবিধাবঞ্চিত নারী ও কিশোরীদের জন্য চ্যারিটি অনুষ্ঠান আয়োজন করলো ডিপিএস এসটিএস স্কুল 

Generic placeholder image
  Ashfak

ডিপিএস এসটিএস স্কুল ঢাকার গার্ল আপ ক্লাব সম্প্রতি স্কুলের সিনিয়র ক্যাম্পাসে সকলের জন্য উন্মুক্ত এক চ্যারিটি অনুষ্ঠান আয়োজন করে। অনুষ্ঠানে বিভিন্ন কার্যক্রমের মাধ্যমে সংগৃহীত অর্থ মেরী স্টোপস বাংলাদেশে অনুদান হিসেবে দেয়া হয়। ডিপিএস এসটিএস স্কুল ঢাকা সবসময় শিক্ষার্থীদের উৎসাহ ও সহায়তা দিয়ে আসছে যেনো তারা সমাজে ইতিবাচক পরিবর্তন আনার ক্ষেত্রে ভূমিকা রাখতে পারেন। এবার সুবিধাবঞ্চিত নারী ও কিশোরীদের জীবনে ইতিবাচক পরিবর্তন আনার লক্ষ্যে স্কুলটির গার্ল আপ ক্লাব চ্যারিটি অনুষ্ঠান আয়োজনের মাধ্যমে এক অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। যেসব শিক্ষার্থীর সুযোগ রয়েছে সুবিধাবঞ্চিত মানুষের জীবনের পরিবর্তনে ভূমিকা রাখার, সেসব শিক্ষার্থীরা এ আয়োজনের মাধ্যমে সহায়তা নিয়ে এগিয়ে আসেন। পরে সংগৃহীত অর্থ মেরী স্টোপস বাংলাদেশে দেয়া হয়। উল্লেখ্য, প্রজনন স্বাস্থ্য ও দেশে নারীদের যৌন নিপীড়নের বিরুদ্ধে ও এক্ষেত্রে তাদের সহায়তা প্রদানের লক্ষ্যে গুরুত্বারোপ করে কাজ করে যাচ্ছে মেরী স্টোপস। সবার জন্য উন্মুক্ত এ চ্যারিটি অনুষ্ঠানটিতে অতিথিদের সরব উপস্থিতি ছিলো। অনুষ্ঠানের দিনে সিনিয়র ক্যাম্পাসের সামনের গেট দিয়ে টিকেট কিনে এ আয়োজনে প্রবেশ করেন আগত অতিথিরা। অনুষ্ঠানে প্রবেশের পর অতিথিরা বিভিন্ন স্টল ঘুরে দেখেন এবং বিভিন্ন আয়োজনে অংশগ্রহণ করেন। দিনব্যাপী এ অনুষ্ঠানে ছিলো গেম স্টল, নাগরদোলা, ঘোড়ার গাড়িতে চড়ার সুযোগ, বাউন্সি হাউজ, ভিআর রুম, এসকেপ রুম, পোশাকের স্টল,খাবারের স্টল সহ অন্যান্য আরও স্টল। শিক্ষার্থীদের অভিভাবক ও অন্যান্য ক্ষুদ্য উদ্যোক্তারা এসব স্টল দেন। ডিপিএস এসটিএস স্কুল ঢাকার অধ্যক্ষ শিবানন্দ সিএস বলেন, “ডিপিএস এসটিএস স্কুল ঢাকায় আমরা এমনভাবে শিক্ষার্থীদের প্রস্তুত করি যেনো তারা সামাজিকভাবে দায়িত্বশীল হয় এবং বিভিন্ন ক্ষেত্রে দক্ষ হয়ে ওঠে। বিশ্ব কীভাবে চলে এবং প্রতিদিন সবাইকে কী ধরনের চ্যালেঞ্জের মধ্য দিয়ে যেতে হয় সে সম্পর্কে যেনো শিক্ষার্থীদের ধারণা থাকে। আমরা আমাদের গার্ল আপ ক্লাব নিয়ে গর্বিত। এ ক্লাব শুধুমাত্র একটি সমস্যা নিয়েই কাজ করছে না, পাশাপাশি মহৎ এ উদ্যোগ গ্রহণের মাধ্যমে তারা পরিবর্তন নিয়ে আসার চেষ্টা করছে।”

মন্তব্য করুন হিসাবে:

মন্তব্য করুন (0)