সরিষাবাড়ীতে চেতনা নাশক স্প্রেতে অজ্ঞান করে বাসা থেকে চুরি

SHAKIL PRESS

জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে অভিনব কায়দায় চেতনা নাশক ঔষুধের স্প্রে করে বাসা থেকে দুর্ধর্ষ চুরির ঘটনা ঘটেছে। গত মঙ্গলবার (৩০নভেম্বর) আনুমানিক মধ্য রাতে উপজেলার পৌর সভার (অর্নাস কলেজ মাঠ সংলগ্ন) দিয়ারকৃষ্ণনাই এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এতে অচেতন হয়ে পড়া বাসার মালিক আবদুল্লা আল-হারুন গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় হাসপাতলে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

আবদুল্লা আল-হারুনের স্ত্রী শাপলা বেগম জানান, তার স্বামী ভাটারা স্কুল অ্যান্ড কলেজের আইসিটি বিভাগের শিক্ষক। তাদের পৈতৃক বাড়ি হলেন উপজেলার বাউসী মধ্যপাড়া।

তারা দিয়ারকৃষ্ণনাই এলাকায় নিজস্ব বাসায় বসবাস করতেন। গত মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে অসুস্থ স্ত্রী’ শাপলা বেগমকে ঔষুধ সেবন করিয়ে তাদের ছোট ছেলেকে নিয়ে আলাদা বিছানায় ঘুমান শিক্ষক হারুন। পরে সকাল সাড়ে ৮টা দিকে রুমে গিয়ে দেখেন তার স্বামী হারুন অচেতন অবস্থায় বিছানায় পড়ে আছেন। রোমের মধ্যে চেতনানাশক ওষুধের গন্ধ ছড়িয়ে রয়েছে। এসময় ঘর এলোমেলো দেখে বুঝতে পারেন রোমে কেউ এসেছিলো। পরে বাহিরে গিয়ে দেখি মই দিয়ে দেওয়াল টপকে, (লোহার লম্বা শিক) দিয়ে দরজার ছিট’কেরী খুলে ঘরের ভিতরে প্রবেশ করেন। ঘরে নতুন শার্টের পকেটে রাখা ৪ হাজার টাকা, বাটন মোবাইল ফোন, আলামারি খুলে নতুন কাপড়-চোপড় চুরি করে নিয়ে যায়।

তিনি আরো বলেন, চুর তেমন কোন দামি জিনিস নিতে পারেনি। তবে আমার স্বামী’কে চেতনানাশক ঔষুধ স্প্রে করার ফলে সে শারীরিক ভাবে গুরুতর অসুস্থ হয়ে সরিষাবাড়ী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। সে এখনো কোন কিছুই বলতে পারছেনা। কিন্তু পাশে শুয়ে থাকা আমার ছেলের কোন কিছুই হয়নি। এই ঘটনাটি পুলিশকে জানানো হবে।

এবিষয়ে সরিষাবাড়ী থানার অফিসার ইনর্চাজ (ওসি) মীর রকিবুল হক বলেন, এঘটনায় এখনো কোন অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
স্বপন মাহমুদ,সরিষাবাড়ী প্রতিনিধি

0 Shares
  • 0 Facebook
  • Twitter
  • LinkedIn
  • Mix
  • Email
  • Print
  • Copy Link
  • More Networks
Copy link
Powered by Social Snap