সন্ধ্যার আগেই মৌলভীবাজার শহর বর্জ্যমুক্ত

Timir Bonik

সন্ধ্যার মধ্যেই কোরবানির পশুর বর্জ্যমুক্ত হলো মৌলভীবাজার শহর। এর ফলে স্বস্তি ফিরে এসেছে শহরের অলিগলি। পৌরসভার সূত্রে জানা গেছে, রোজ বুধবার (২১জুলাই) বেলা ১১টা থেকে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা পর্যন্ত ৭০ জন পরিচ্ছন্নতা কর্মী শহরের অলিগলি, পাড়া-মহল্লার কোরবানির বর্জ্য অপসারণে নামেন।

এতে ব্যবহার করা হয় ১১টি ট্রাক ও পিকআপ। স্বাস্থ্য সুরক্ষায় ছিটানো হয় ব্লিচিং পাউডার।মেয়র ফজলুর রহমানের তত্ত্বাবধানে কোরবানির বর্জ্য অপসারণে মাঠে ছিলেন পৌর কাউন্সিলর জালাল আহমদ ও অ্যাডভোকেট পার্থ সারথি পাল।

এছাড়াও ছিলেন কনজারভেন্সি ইন্সপেক্টর আব্দুল মতিন, উপ-সহকারী প্রকৌশলী (বিদ্যুৎ) রণধীর রায় কানু। টানা ৫ থেকে ৬ ঘণ্টার কাজ শেষে সন্ধ্যার মধ্যেই কোরবানির বর্জ্যমুক্ত হয় মৌলভীবাজার শহর।
পৌর মেয়র ফজলুর রহমান বলেন, আমি দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই মৌলভীবাজার শহরকে পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন রাখতে সচেষ্ট ছিলাম। শহরবাসী যেন কোরবানির বর্জ্য এবং দুর্গন্ধে না ভোগেন সেজন্য বিগত বছরগুলোতে চেষ্টা করেছি।

কোরবানির বর্জ্যের দুর্গন্ধ কি মানুষ টের পায়নি। এবারও ব্যতিক্রম হয়নি। মৌলভীবাজার একটি পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন শহর গড়তে নাগরিকদেরও সহযোগিতা চান পৌর মেয়র।
তিমির বনিক,মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধি