শ্বশুর বাড়িতে যুবকের মৃত্যু,পরিবার বলছে পরিকল্পিত হত্যা

From father-in-law house in Lakshmipur

শ্বশুর বাড়ি থেকে মো. আল-আমিন (২৭) নামে এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

রোববার সকালে লক্ষ্মীপুরে কমলনগর উপজেলার চরকাদিরা ইউনিয়নের চরবসু গ্রাম থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এর আগে শনিবার গভীর রাতে বিষপানে আল-আমিনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে শ্বশুর বাড়ির লোকজন। তবে তার ভাই জসিমের দাবি এটি পরিকল্পিত হত্যা।

আল-আমিন উপজেলার চরজগবন্ধু ইউনিয়নের সাহেবের হাট গ্রামের বেলায়েত হোসেন মাঝির ছেলে।

নদী ভাঙনে সবকিছু হারিয়ে পরিবারের সবাই চরকাদিরা ইউনিয়নে ভাড়া বাড়িতে থাকেন। তবে আল-আমিন শ্বশুর বাড়িতে থাকতেন। তার দেড় বছরের একটি ছেলে আছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, আল-আমিন শনিবার বিকেলে বিষপান করে অসুস্থ হয়ে পড়েন। বাড়ির লোকজন বুঝতে পেরে স্থানীয়দের সহযোগিতায় বিভিন্নভাবে বিষমুক্ত করতে চেষ্টা করে।

এতে সে তাৎক্ষণিক কিছুটা সুস্থ হলেও রাতে বিষক্রিয়ায় মারা যান। তবে তাকে হাসপাতালে নেয়া হয়নি।

আরও পড়ুনঃ চাচি-ভাতিজার পরকীয়া কেড়ো নিল মাহিমার প্রাণ

এদিকে এ ঘটনাকে পরিকল্পিত হত্যা বলে অভিযোগ করেছেন তার ভাই জসিম। তিনি বলেন, আমার ভাইয়ের স্ত্রী নাজমা ফোনে একটি ছেলের সঙ্গে কথা বলতো। আল-আমিন বাধা দিলে তার উপর নাজমা ক্ষুব্ধ হয়।

এ নিয়ে দুইজনের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে নাজমা ও তার বাবা আজাদ মাঝি, মা, বোন ও চাচা আল-আমিনকে মারধর করে। পরে জোরপূর্বক মুখে বিষ ঢেলে দিয়ে তাকে হত্যা করেছে।

তিনি আরও বলেন, কয়েকদিন আগেও আমার ভাইকে তারা মারধর করেছিল। আমি হত্যাকারীদের বিচার চাই।

কমলনগর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোশারেফ হোসেন বলেন, এ ঘটনায় নিহতের বাবা বেলায়েত বাদী হয়ে অপমৃত্যুর মামলা করেছেন। মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। প্রতিবেদন পেলে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

0 Shares
  • 0 Facebook
  • Twitter
  • LinkedIn
  • Mix
  • Email
  • Print
  • Copy Link
  • More Networks
Copy link
Powered by Social Snap