শায়েস্তাগঞ্জ ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কেন্দ্রে, স্বাস্থ্য সেবা বিঘ্নিত!

News and pic

হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রে পরিবার কল্যাণ পরিদর্শক না থাকায় এএনসি, পিএনসি ও ডেলিভারী সেবা বঞ্চিত হচ্ছে জনসাধারণ। ওই কেন্দ্রের ডেলিভারি রুমটি দীর্ঘদিন ব্যবহার না করায় অনেক মূল্যবান সামগ্রী নষ্ট হওয়ার উপক্রম হয়েছে।

কেন্দ্রটি পরিদর্শন শেষে এসব তথ্য জানালেন হবিগঞ্জ পরিবার পরিকল্পনা উপ-পরিচালক মো. আব্দুর রহিম চৌধুরী। তিনি জানান, পরিদর্শনকালে ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রে কর্মরত উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিক্যাল অফিসার, পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকা, আয়া উপস্থিত ছিলেন। কেন্দ্রটি দিন – রাত ২৪ ঘন্টা খোলা থাকার কথা থাকলেও বাস্তবে তা কার্যকর নয়। এখানে থাকার জন্য বাসা দু’টির অবস্থা খুবই খারাপ। মেরামত ছাড়া কোনোভাবে ব্যবহার করা যাবেনা। যদিও একজন পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকাকে সপ্তাহে চারদিন এখানে কাজের বিধান রয়েছে।

জানা যায়, গত দুবছরে এ কেন্দ্রে একটি ডেলিভারীও করানো হয়নি। যদিও, আইউডিতেও তেমন কোন অগ্রগতি নেই। পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকাকে সপ্তাহে ২দিন পৈল ইউনিয়নে ও ৪দিন শায়েস্তাগঞ্জ ইউনিয়নে দায়িত্বপালনের স্থানীয় আদেশ রয়েছে। কিন্তু এতে করে কোন ইউনিয়নে পুর্ণাঙ্গ সেবা প্রদান সম্ভব হচ্ছেনা। এই কেন্দ্রটির পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকার নিজস্ব রুম, ইনসারশন রুম, ডেলিভারি রুম, স্টোররুম সবকিছুতেই পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার অভাব রয়েছে।

বিভিন্ন কক্ষে রক্ষিত মালামালের কোন শৃঙ্খলা নেই। তিনি বলেন, পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকার বক্তব্যে প্রতীয়মান হয়েছে তিনি নিয়মিত পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রে তার উপর আরোপিত দায়িত্ব পালনে তৎপর নন। কেন্দ্রে প্রদেয় সেবার তথ্য যাচাইয়ের জন্য সংশ্লিষ্ট রিপোর্ট রেজিস্ট্রার দেখাতে বলা হলে তা সঠিকভাবে দেখাতে পারেননি। ট্যাবের ব্যবহারেও গাফিলতির চিহ্ন পাওয়া যায়। ম্যানুয়েল রিপোর্টও সম্পূর্ণ নেই।

মো. আব্দুর রহিম জানান, উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিক্যাল অফিসার ইনচার্জ হিসেবে আরও তৎপর হওয়া উচিত ছিল। এই মুহুূর্তে বাসার অবস্থা ভাল না থাকায় কেন্দ্রে অবস্থান করা সম্ভব নয় তবে টয়লেট ও বাসায় সামান্য কিছু কাজ করালে ব্যবহার উপযোগী হবে।

এ ব্যাপারে এইচইডির দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়েছে। হবিগঞ্জ সদর উপজেলার কর্মকর্তাগণ উক্ত পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রটি পরিদর্শন করে উপ-পরিচালক কর্তৃক পরবর্তী পরিদর্শনের পূর্বে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধ করা হয়েছে।
শায়েস্তাগঞ্জ (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি

0 Shares
  • 0 Facebook
  • Twitter
  • LinkedIn
  • Mix
  • Email
  • Print
  • Copy Link
  • More Networks
Copy link
Powered by Social Snap