শায়েস্তাগঞ্জে ইউএনও পরিচয়ে চাঁদা দাবি

Tanvir Chowdhury

হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জে ইউএনও পরিচয় দিয়ে ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের ভয় দেখিয়ে তিন ব্যবসায়ীর কাছে চাঁদা চাওয়া হয়েছে। এ ঘটনায় সবাইকে সতর্ক থাকতে বলেছে উপজেলা প্রশাসন। বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি) বিকালে পৃথক মোবাইল ফোন থেকে কল করে এ চাঁদা চাওয়া হয়।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার বিকালে একটি মোবাইল নম্বর থেকে শায়েস্তাগঞ্জ পৌরসভার দাউদনগর বাজারের শেরাটন হোটেল এন্ড রেস্টুরেন্টের মালিক আব্দুল হামিদের মুঠোফোনে কল আসে।

এ সময় কলদাতা নিজেকে শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) পরিচয় দিয়ে বলেন, “আপনার দোকানে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হবে”। বড় অংকের জরিমানা থেকে বাঁচতে দ্রুত বিকাশ নম্বরে কিছু টাকা পরিশোধ করুণ। একইভাবে পৃথক নম্বর থেকে দাউদনগর বাজারের হোটেল আল সোহাগের মালিক আব্দুল বাছির ও স্টেশন রোড বাজারের পানহার হোটেল এন্ড রেস্টুরেন্টের মালিক ব্যবসায়ী কল্যান সমিতি (ব্যকস) এর সাধারন সম্পাদক আব্দুল মুকিতের কাছে চাঁদা চাওয়া হয়।

প্রথমবার ফোন কল পেয়ে তিন ব্যবসায়ী আতঙ্কিত হন। কিন্তু বার বার কল আসার পর তাদের সন্দেহ হয়। পরে তারা ইউএনও মোঃ মিনহাজুল ইসলামের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। এরপর উপজেলা প্রশাসনের ফেসবুক পেজে একটি বার্তা দেন ইউএনও। সেই বার্তায় তিনি এ ধরনের প্রতারক থেকে সবাইকে সতর্ক থাকার অনুরোধ জানান।

এ বিষয়ে শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা(ইউএনও) মোঃ মিনহাজুল ইসলাম বলেন, ঘটনাটি জানার পরপরই থানা পুলিশকে জানিয়েছি। তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহারের মাধ্যমে প্রতারক চক্রটিকে শনাক্তের চেষ্টা চলছে। পরপর ০১৬১০৪৬৯৮১০, ০১৯২৯৫৫৪৮৯৭ ও ০১৯৪২২৮৬৪৮১ নম্বর থেকে চাঁদা চাওয়া হয় বলে জানিয়েছেন তিনি ।

শায়েস্তাগঞ্জ (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি

0 Shares
  • 0 Facebook
  • Twitter
  • LinkedIn
  • Mix
  • Email
  • Print
  • Copy Link
  • More Networks
Copy link
Powered by Social Snap