শায়েস্তাগঞ্জে অপরিকল্পিতভাবে মাটি কাটায় হুমকির মুখে ঋষি পরিবার

Muzammel Hydar, Shayestaganj

হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার সুতাং বাজারের ব্রীজের নির্মাণ কাজ পুরোদমে শুরু হয়েছে। সম্প্রতি পুরাতন ব্রীজ পুরোটাই ভেংগে ফেলা হয়েছে। এরই মধ্যে এক্সেভেটর দিয়ে মাটি কাটা চলছে। সুতাং ব্রীজ সংলগ্ন ঋষি সম্প্রদায়ের বেশ কয়েকটি পরিবার এখানে দীর্ঘবছর যাবত বসবাস করে আসছে।
অপরিকল্পিত ভাবে মাটি কাটার ফলে হুমকিতে রয়েছে রবিদাস পরিবারের বসতবাড়িগুলো। এ অবস্থায় পরিবারের প্রতিটি সদস্যকে নিয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ঘরে বসবাস করতে হচ্ছে রবিদাশ পাড়ার সংখ্যালঘু পরিবারগুলোকে ।

সরেজমিন গেলে জানা যায়, শতাধিক বছর ধরে সুতাং ব্রিজের উভয় পাশে বসবাস করে আসছে তিনটি রবিদাস পরিবার। এরমধ্যে ব্রিজের পশ্চিম দিকে অবস্থিত একটি বসতঘরে একই পরিবারের ৭ জন সদস্য বসবাস করে আসছে।

সোমবার ব্রিজের নির্মাণ কাজের প্রয়োজনে এক্সভেটর দিয়ে অপরিকল্পিতভাবে মাটি কাটা শুরু করে। এ অবস্থায় পরিবারটি জীবনের ঝুঁকি নিয়ে বসবাস করছে। ধারণা করা হচ্ছে, যেকোন সময় তাদের বসতঘরটি ভেঙ্গে যেতে পারে।

ঋষি পরিবারের রবিদাস জানান, মাটি কেটে তাদের লেট্রিন ও রান্না করার স্থান বিলীন করে দেওয়া হয়েছে। বসতঘরটিও ভেঙ্গে যাওয়ার উপক্রম। তারা ঝুঁকি নিয়ে বসবাস করছেন। এর আগেও একটি প্রভাবশালী মহল ঋষি পরিবারকে তাড়িয়ে দেয়ার জন্য দীর্ঘদিন পায়তারা করে তাদের ক্ষতি করেছে।

স্থানীয় কয়েকজন মাতাল এই পরিবারের উপর জুলুম নির্যাতনও করেছে। সর্বশেষ এই পরিবারের একজনকে ধর্ষণ করে হত্যা ও করেছিল স্থানীয় একজন মাতাল। বুধবার শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিনহাজুল ইসলাম ও উপজেলা মানবাধিকার কমিশনের সভাপতি মোঃ আব্দুর রকিব ও সাধারন সম্পাদক কামরুজ্জামান আল রিয়াদ ঘটনাস্থল পরির্দশন করেছেন।

এ ব্যাপারে নূরপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ মুখলিছ মিয়ার বলেন ব্রিজের পাশে শত বছরের বসবাস তিনটি রবিদাস পরিবারের। অপরিকল্পিতভাবে মাটি কাটায় ব্রিজের পশ্চিম দিকের রবিদাস পরিবারটি জীবনের ঝুঁকি নিয়ে বসবাস করছে। এ তথ্য জানার পর আমি ঘটনাস্থলে গিয়ে এর প্রতিবাদ করেছি। তিনি বলেন, ব্রিজ নির্মাণ হোক আমরা সবাই চাই।

তবে পরিকল্পনা মাফিক কাজ করলে এ অবস্থা সৃষ্টি হওয়ার কথা নয়। মানবাধিকার লঙ্ঘন করে তাদেরকে উচ্ছেদ করার পায়তারা চলছে, এটি হতে দেয়া যাবে না। এ বিষয়ে ব্রিজের ঠিকাদার গোলাম ফারুক জানান, ব্রিজের নির্মাণ কাজের জন্য নিয়ম মেনে মাটি কাটা হচ্ছে।

এখানে কোন প্রকারের অনিয়ম করা হয়নি। আমি কারো ক্ষতি করতে চাই না। ইতিমধ্যেই এই ঠিকাদারের বিরুদ্ধে সুতাং ব্রীজের পুরাতন রড নিলামে না তুলে নিজেই বিক্রি করে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে।
মোজাম্মেল হায়দার,শায়েস্তাগঞ্জ (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি