শারীরিক সম্পর্কের পর শ্বাসরোধে প্রেমিকাকে হত্যা

Killing girlfriend by suffocation after sexual intercourse

দীর্ঘদিনের প্রেমিকা ফাতেমাকে বিয়ের প্রলোভনে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করেন প্রবাসফেরত ইউনুছ আলী। ফাতেমা বিয়ের চাপ দিলে তাকে ডেকে নিয়ে শারীরিক সম্পর্কের একপর্যায়ে শ্বাসরোধে হত্যা করেন ইউনুছ।

এরপর এ হত্যাকান্ড ধামাচাপা দিতে পাশের নির্মাণাধীন ঘরের ভিটা খুঁড়ে লাশ বালিচাপা দেন। তারও পরে ঘাতক ইউনুছ নির্মাণাধীন বাড়ির মালিককে ঘরের ভিটা কংক্রিটের ঢালাই দিতে বলেন এবং এ জন্য নগদ অর্থও দিতে চান।

কিন্তু এতে বিপদ কাটেনি। বরং দুই দিন পর লাশের পচা গন্ধ বেরোলে পুলিশ আসে। তারা লাশ উদ্ধার করে। চাঞ্চল্যকর এ হত্যা মামলার তদন্তভার পেয়ে মাত্র ৪৩ দিনের মধ্যে হত্যা রহস্য উদ্ঘাটন করে পিবিআই নারায়ণগঞ্জ।

ঘাতক প্রেমিক ইউনুছ আলীকে আটক করা হয়েছে সিলেটের জৈন্তাপুর ভারতীয় সীমান্তবর্তী পাহাড়ি এলাকা থেকে। গতকাল নারায়ণগঞ্জের পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) পুলিশ সুপার মনিরুল ইসলাম সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান।

আরও পড়ুনঃ রাশেদের বাচ্চা আমার পেটে’ওকে তুমি বাঁচতে দিও না আম্মু

নিহত ফাতেমা আক্তার আড়াইহাজার উপজেলার গহরদী এলাকার বিল্লাল হোসেনের মেয়ে। তিনি মানিকপুরে মামা ইলিয়াস মোল্লার বাড়ি ভাড়া থাকতেন। ইউনুছ আলী আড়াইহাজারের বিশনন্দী এলাকার আবদুরের ছেলে।