মাদকবিরোধী সমাজ গঠনে সাংবাদিকদের অংশগ্রহণ বৃদ্ধিকরণ বিষয়ক গোলটেবিল সভা

বাংলাদেশ সরকার মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স (শূন্য সহিষ্ণুতা) নীতি ঘোষণা করেছেন। সরকারের মাদকবিরোধী কর্মসূচীকে আরো গতিশীল করতে এবং জাতীয় ও স্থানীয় পর্যায়ের সাংবাদিকদের অংশগ্রহণে আজ ৯ মে ২০২১ রবিবার মাদকবিরোধী সমাজ গঠনে সাংবাদিকদের অংশগ্রহণ বৃদ্ধিকরণ বিষয়ক একটি গোলটেবিল সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বাংলাদেশ সরকার মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স (শূন্য সহিষ্ণুতা) নীতি ঘোষণা করেছেন। সরকারের মাদকবিরোধী কর্মসূচীকে আরো গতিশীল করতে এবং জাতীয় ও স্থানীয় পর্যায়ের সাংবাদিকদের অংশগ্রহণে আজ ৯ মে ২০২১ রবিবার মাদকবিরোধী সমাজ গঠনে সাংবাদিকদের অংশগ্রহণ বৃদ্ধিকরণ বিষয়ক একটি গোলটেবিল সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সভাটি জুমে অনলাইনে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন ঢাকা আহছানিয়া মিশনের স্বাস্থ্য ও ওয়াশ সেক্টরের পরিচালক ইকবাল মাসুদ। সভায় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এবং বক্তব্য প্রদান করেন রাজশাহী জেলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ( সার্বিক) মুহাম্মদ শরিফুল হক, পুঠিয়া উপজেলার উপজেলা নিবাহী কর্মকর্তা নুরুল হাই মোহাম্মদ আনাস, দুর্গাপুর উপজেলার উপজেলা নিবাহী কর্মকর্তা মোঃ মোহসীন মৃধা এবং মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের রাজশাহী বিভাগের অতিরিক্ত পরিচালক মোঃ জাফরউল্লাহ কাজল। সভায় স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন লাইট হাউজের নির্বাহী পরিচালক মো: হারুন- অর -রশিদ।

সভাটি দাড়াও প্রকল্পের আওতায় ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন ও লাইট হাউজ কনসোর্টিয়াম এর আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় রাজশাহী বিভিন্ন গনমাধ্যমে কাজ করছেন এমন ৩০ জন সাংবাদিক অংশগ্রহণ করেন।

অংশগ্রহণকারী সাংবাদিকগন দাড়াও প্রকল্পের আওতায় যে সমস্ত সফলতা এসেছে এগুলো তাদের সংবাদের মাধ্যমে তুলে ধরা, জনচতেনতা বৃদ্ধিমুলক প্রোগ্রাম আয়োজন এবং বিভিন্ন মাধ্যমে মাদক সমস্যা থেকে সুস্থতাপ্রাপ্ত ব্যক্তিদের সফলদার গল্প বিভিন্ন মাধ্যমে প্রকাশের বিষয়ে গুরুত্ব প্রদান করেন। সভায় প্রকল্পের কাযক্রম ও মাদকবিরোধী সমাজ গঠনে সাংবাদিকদের ভূমিকা নিয়ে সচিত্র উপস্থাপনা করেন দাড়াও প্রকল্পের মনিটরিং এবং লানিং কোর্ডিনেটর সুব্রত কুমার পাল।

উক্ত অনলাইনে আয়োজিত সভাটি সঞ্চালনা করেন ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশনের দাড়াও প্রকল্পের এডভোকেসি অফিসার উম্মে জান্নাত। সভায় মুক্ত আলোচনা পর্বে সভার অতিথিগন এবং আয়োজক সংস্থার প্রতিনিধিগন অংশগ্রহণকারীদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন।

এছাড়াও সভায় বক্তব্য প্রদান করেন ইউএসএইড এর সিভিল সোসাইটি এডভাইজার সুমনা বিনতে মাসুদ এবং আপোস এর নির্বাহী পরিচালক আবুল বাশার পল্টু। পরিশেষে সভার সভাপতি ঢাকা আহছানিয়া মিশনের স্বাস্থ্য ও ওয়াশ সেক্টরের পরিচালক ইকবাল মাসুদের বক্তব্যের মধ্যে দিয়ে সভা সমাপ্তি হয়।
সভার সভাপতি এবং অথিতিগন তাদের বক্তেব্যে মাদক বিরোধী সমস্যা নিয়ে সাংবাদিকদের কাজের মাধ্যমে জনসচেতনতা বৃদ্ধির বিষয়ে গুরুত্ব প্রদান করেন।

উল্লেখ্য ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন দীর্ঘ ৩০ বছর যাবৎ মাদকবিরোধী কাযক্রম বাস্তবায়ন করছে এবং এই প্রতিরোধ কাযক্রমের ধারাবাহিকতায় ইউএসএইড এবং ইউকেএইড-এর আর্থিক সহায়তায় কাউন্টারপার্ট ইন্টরন্যাশনাল কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন প্রোমোটিং এ্যাডভোকেসি এন্ড রাইটস (পার) কর্মসূচির আওতায় লাইট হাউস কনসোটিয়াম-যৌথ অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন, লাইট হাউস, আসক্ত পুনর্বাসন সংস্থা (আপস)-রাজশাহী এবং নারী ও শিশু কল্যান সোসাইটি মাদক বিরোধী প্রকল্প ড্রাগ অ্যাবিউজ রেজিসটেনস্ এন্ড আন্ডারস্ট্যান্ডিং (দাড়াও) প্রকল্পটি ২০১৯ সাল থেকে বাস্তবায়ন করছে। প্রকল্পের কাযক্রম রাজশাহী ও নাটোর জেলায় মাঠ পর্যায়ে বাস্তবায়িত হচ্ছে।