বিয়ের এক সপ্তাহ পরই নববধূ ৭ মাসের অন্তঃসত্ত্বা!

The bride is seven months pregnant after a week of marriage

সিরাজগঞ্জের তাড়াশে এক তরুণী ধর্ষণের শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। অভিযুক্ত ধ’র্ষকের নাম রিপন আহমেদ আকাশ (২৬)। ধ’র্ষিত নারী বর্তমানে ৭ মাসের অন্তঃসত্ত্বা।

ঘটনাটি ঘটেছে সিরাজগঞ্জ জেলার তাড়াশ উপজেলার নওগাঁ ইউনিয়নের চৌপাকিয়া গ্রামে। অভিযুক্ত ধ’র্ষক রিপন ওই গ্রামের আপেল উদ্দিনের ছেলে।

ধ’র্ষিতা ওই নারীর বাবা ও স্থানীয়রা জানান, সিরাজগঞ্জ জেলার তাড়াশ উপজেলার নওগাঁ ইউনিয়নের চৌপাকিয়া গ্রামের বাসিন্দা নারীর ২৫ দিন আগে পার্শ্ববর্তী উল্লাপাড়া উপজেলার ঘোনাগাইনজালী গ্রামে বিয়ে হয়।

বিয়ের এক সপ্তাহ পরই ওই নববধূ অসুস্থ হয়ে পড়লে শ্বশুরবাড়ির লোকজন তাকে সিরাজগঞ্জ শহরে একটি বেসরকারি ক্লিনিকে নিয়ে যায়। সেখানে শারীরিক পরীক্ষার পর রিপোর্টে ওই নববধূ সাত মাসের গর্ভবতী বলে জানা যায়।

এরপরই তাৎক্ষণিক স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজন তাকে বাবার বাড়ি পাঠিয়ে দেয় ও পরে ডিভোর্স দেয়। পরে নিজের পরিবারের সদস্যদের কাছে ওই নববধূ সমস্ত ঘটনা স্বীকার করে বলেন, অভিযুক্ত ধ’র্ষক রিপন তাকে একাধিকবার ধ’র্ষণ করেছে।

আরও পড়ুনঃ প্রেমের ফাঁদে ফেলে তরুণীকে একাধিকবার ধর্ষণ

তিনি আরও জানান, বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ও ভয়ভীতি দেখিয়ে বিভিন্ন সময় অভিযুক্ত রিপন আমাকে ধ’র্ষণ করে। পরে অন্তঃসত্ত্বা হয়েছি শুনে সে আমার গর্ভের সন্তান নষ্ট ও আমাকে হত্যার হুমকি দেয়। তাই ভয়ে কাউকে কিছুই জানাই নি। এদিকে এ প্রসঙ্গে অভিযুক্ত ধ’র্ষক রিপনের পরিবার কথা বলতে রাজি হয়নি।

জেলার তাড়াশ উপজেলার নওগাঁ ইউপি চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান মজনু সরকার ঘটনার কথা নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনাটি অত্যান্ত লজ্জাজনক। এর উপযুক্ত বিচার করা হবে।

এ বিষয়ে তাড়াশ থানার ওসি মো: মাহবুবুল আলম বলেন, আমি ঘটনাটি শুনেছি। এ বিষয়ে কেউ থানায় অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে অবশ্যই আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

0 Shares
  • 0 Facebook
  • Twitter
  • LinkedIn
  • Mix
  • Email
  • Print
  • Copy Link
  • More Networks
Copy link
Powered by Social Snap