ফটিকছড়িতে চাঁদাবাজি করতে গিয়ে মাদক ব্যবসায়ীসহ ৪ ভুয়া সাংবাদিক আটক

Buya Sangbadik Grefter

চট্রগ্রামের ফটিকছড়ি উপজেলার ভুজপুর থানার দাঁতমারা ইউনিয়নের শান্তিরহাট বাজারে গলায় প্রেসকার্ড ঝুলিয়ে সোমবার রাত ৮ টায় সাংবাদিক পরিচয়ে চাঁদাবাজি করতে গিয়ে এক মাদক ব্যবসায়ী যুবকসহ ৪ নামধারী সাংবাদিক ব্যবসায়ীরা আটক করে স্থানীয় থানা পুলিশে সোপর্দ করেছে।

এঘটনায় তাদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। স্থানীয় ব্যবসায়ীরা জানান, গ্রেফতারকৃতরা ওই এলাকায় নিজেদেও সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে প্রথমে একটি কাঁঠের গাড়ী আটক করে ১ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়। পড়ে স্থানীয় এক বেকারী ব্যবসায়ীকে হুমকি দিয়ে টাকা দাবী করলে স্থানীয় ব্যবসায়ীরা তাদের আটক করে পুলিশে খবর দেয়।

খবর পেয়ে ফটিকছড়ি থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে ২ নারী ও ২ যুবককে জনরোষের হাত থেকে উদ্ধার পূর্বক আটক করেছে। এ সময় তাদের কাছ থেকে প্রতারণার কাজে ব্যবহৃত একটি প্রাইভেটকার (ঢাকা মেট্টো-গ-২৮-৯৮২০), ১২টি মোবাইল ফোন, ৩টি ক্যামেরা, ২টি পাওয়ার ব্যাংক, নগদ টাকাসহদৈনিক বর্তমানের কথা ও দৈনিক রুদ্র বাংলাদেশ নামক দুটা পত্রিকার ৩ টি আইডি কার্ড জব্দ করা হয়। আটককৃতরা হলো, ময়মনসিংহ জেলার গফরগাঁও থানার ধোপঘাট এলাকার মৃত ওয়াজ উদ্দিন সরকারের ছেলে জয়নাল আবেদিন জয় (৩০), গাজীপুর মেট্রোপলিটনের পুবাইল থানাধীন ভাদুন গ্রামের স্থায়ী এবং বর্তমানে তালটিয়া গ্রামের বাসিন্দা মিজান সরকার এবং ওই এলাকার শীর্ষ মাদক ফেনসিডিল ব্যবসায়ী সোনিয়ার ছেলে ও টঙ্গীর শীর্ষ ফেনসিডিল ও ইয়াবা ব্যবসায়ী মোমেলার মেয়ের জামাই মাদক ব্যবসায়ী ইয়াছিন সরকার প্রকাশ ওরফে হৃদয় ওরফে পিসি হৃদয় (২৬), জামালপুর জেলার মাদারগঞ্জ থানার নয়াপাড়া এলাকার মৃত রহমত উল্যাহ প্রকাশ ওরফে তাঁরা মিয়ার কন্যা পারভিন আকতার লিমা (৩০) ও ময়মনসিংহ জেলার ফুলপুর থানার বালিয়া এলাকার স্থায়ী বাসিন্দা এবং গাজীপুর জয়দেবপুরের নাওজোড় এলাকার সুরুজ আলী মাতবরের মেয়ে বিলকিস আকতার রুবী (২৫)। আটককৃতদের ব্যবহৃত প্রাইভেটকারটি টঙ্গীর শীর্ষ ফেনসিডিল ও ইয়াবা ব্যবসায়ী মোমেলা বেগমের এবং উক্ত প্রাইভেটকার যোগে সোনিয়া, মোমেলা ও ইয়াছিন সরকার প্রকাশ ওরফে হৃদয় ওরফে পিসি হৃদয় বিভিন্ন সময় বি-বাড়িয়া আখাউড়া, কুমিল্লার দাউদকান্দি ও গৌড়িপুর, কক্সবাজার, টেকনাফ এবং ফটিকছড়ি উপজেলার ভুজপুর থানার দাঁতমারা ইউনিয়নের শান্তিরহাট বাজার এলঅকা থেকে মাদকদ্রব্য বহন করে গাজীপুরের টঙ্গী, পূবাইল, জয়দেবপুর সদও, উত্তার বিভিন্ন থানা এলাকায় সরবরাহ করতো বলে একটি বিশেষ সূত্রে জানা গেছে। স্থানীয় প্রত্যক্ষদশীরা জানান, সোমবার রাত ৮ টার দিকে হঠাৎ প্রাইভেটকারে করে এসে শান্তিরহাট বাজারের একটি বেকারীতে প্রবেশ করে সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে প্রতিষ্ঠানের বধৈতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে এবং কাগজপত্র দেখতে চায় দুই যুবক। এ সময় তাদের প্রাইভেটকারে বসা অপর দুই নারী প্রতারককে দেখিয়ে সিনিয়র সাংবাদিক বলে পরিচয় দেয়। পরে বেকারী মালিককের নিকট মোটা অংকের টাকা দাবী করে। টাকা না দিলে পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের হুমকী দেয়। এ সময় তাদের কথাবার্তা সন্দেহজনক মনে হলে স্থানীয় ব্যবসায়ীরা তাদের আটক করে পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ এসে জনরোষ থেকে তাদের উদ্ধার পূর্বক জিজ্ঞাসাবাদে সত্যতা পেয়ে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। এব্যাপারে ভুজপুর থানার দাঁতমারা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (ইন্সপেক্টর) মো. আতাউল হক চৌধুরী বলেন,আটককৃতদের বিরুদ্ধে ভূজপুর থানায় মামলা দায়ের শেষে রিমান্ড চেয়ে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

মৃণাল চৌধুরী সৈকত, টঙ্গী