প্রেমের ফাঁদে ফেলে তরুণীকে একাধিকবার ধর্ষণ

Rape young woman by falling into love

নাটোরের সিংড়ায় প্রেমের ফাঁদে ফেলে এক তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। বিয়ে করতে বলায় শারীরিকভাবে নির্যাতনও করা হয়েছে ওই তরুণীকে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত প্রেমিক জিহাদকে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ।

গ্রেফতার জিহাদ উপজেলার তেরোবাড়িয়া গ্রামের আব্দুল আলীমের ছেলে ও সিংড়া বাজারের কসমেটিক ব্যবসায়ী বলে জানা গেছে।

শুক্রবার (২১ ফেব্রুয়ারি) সিংড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে দেখা যায়, ওই তরুণী নারী ওয়ার্ডের মেঝেতে শুয়ে কাতরাচ্ছেন।

সিংড়া থানা পুলিশ ও হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, প্রেমের ফাঁদে ফেলে সিংড়ার ওই তরুণীকে একাধিকবার ধর্ষণ করেন প্রতিবেশী যুবক জিহাদ।

গত বুধবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) জিহাদের দোকানে গিয়ে বিয়ের প্রস্তাব দেন ওই তরুণী। এতে জিহাদ রাগান্বিত হয়ে তাকে বেধরক মারপিট করে পালিয়ে যান।

আহত ওই তরুণী অভিযোগ করে বলেন, বিয়ের প্রলোভন দিয়ে আমাকে শুধু ব্যবহার করা হয়েছে। বিয়ের জন্য মোটা অঙ্কের টাকাও দাবি করেছে জিহাদ। আমি একটা মধ্যবিত্ত পরিবারের মেয়ে। এতগুলো টাকা কোথায় পাব।

আরও পড়ুনঃ মিষ্টির লোভ দেখিয়ে বাড়িতে নিয়ে ধর্ষণ

সিংড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নারী ওয়ার্ডের সিনিয়র নার্স মনোয়ারা খাতুন বলেন, ওই তরুণীর শরীরে মারপিটের দাগ রয়েছে?

সিংড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডা. ইসরাত জাহান জানান, আহত তরুণীকে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। তার শরীরে বেশ ব্যথা রয়েছে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সিংড়া থানা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) মাহবুব হোসেন জানান, এ ঘটনায় থানায় ধর্ষণ মামলা করা হয়েছে।

অভিযুক্ত যুবককে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এখন অভিযোগকারী তরুণীর ডাক্তারি রিপোর্ট হাতে পেলেই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

0 Shares
  • 0 Facebook
  • Twitter
  • LinkedIn
  • Mix
  • Email
  • Print
  • Copy Link
  • More Networks
Copy link
Powered by Social Snap