নড়াইলে ভুল রক্ত পুষ করায় ক্লিনিকের মালিক-ডাক্তারসহ ৬ জনের নামে মামলা

narail news

নড়াইলের লোহাগড়ার মোর্শেদা ক্লিনিকের মালিক, ডাক্তারসহ ৬জনের নামে লোহাগড়া থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। সূত্র জানায়, সিএন্ডবি চৌরাস্তায় মোর্শেদা ক্লিনিকে একজন রোগীর শরীরে ও-পজেটিভ গ্রুপের রক্তের পরিবর্তে বি-পজেটিভ গ্রুপের রক্ত পুষ করায় রোগীর শারীরিক অবস্থা শংকটাপন্ন হয়ে পড়ে।

আর তাই রোগীর ভাই সোহেল রানা বাদী হয়ে ৬ জনকে আসামী করে ১৮ এপ্রিল লোহাগড়া থানায় মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং ২৯। এদিকে, ক্লিনিকের মালিক এঘটনায় মামলা থেকে রক্ষা পেতে বিএনপির চারজন নেতাসহ ৯ জনের নামে মামলা দায়ের করেছেন।

এজাহার ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ইতনা ইউপির পাংখারচর গ্রামের আরকান ওরফে ওলিয়ার মোল্যার স্ত্রী আকলিমা বেগম খুশি(৪৫)কে টিউমার ও এপেন্ডিস অপারেশনের জন্য গত ১ এপ্রিল বিকালে মোর্শেদা ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়। এরপর রোগীর স্বজনদের সাথে ক্লিনিক মালিক জাকির হোসেনের অপারেশনের জন্য সাড়ে ১৬ হাজার টাকা চুক্তি হয়।

পরের দিন ক্লিনিক মালিক জাকির হোসেনকে চুক্তিকৃত টাকা প্রদান করে রোগীর পরিবার। গত ২ এপ্রিল সকালে ডাঃ তাজরুল ইসলাম তাজের মাধ্যমে ওই রোগীকে প্রথম দফায় অপারেশন করা হয়। সন্ধ্যায় দ্বিতীয় দফায় অপারেশন করা হয়। অপারেশনের পর ক্লিনিক মালিক জানায় রোগীর শরীরে বি-পজেটিভ রক্তের প্রয়োজন। পরে রোগীর শরীরে বি-পজেটিভ রক্ত পুষ করা হয়।

রোগীর ভাই শেখ সোহেল অভিযোগ করেন, আমার বোন কে দুইবার অপারেশন করা হয়েছে এবং ও-পজেটিভ রক্তের পরিবর্তে বি-পজেটিভ রক্ত পুষ করা হয়েছে। যে কারনে আমার বোনের শারীরিক অবস্থা আশংকাজনক হয়ে পড়ে।

পরে বোনকে খুলনা সিটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেছি এদিকে, ক্লিনিকের ওই ঘটনা ধামাচাপা দিতে ক্লিনিকের মালিক জাকির হোসেন বাদী হয়ে রোগীর আত্মীয় জেলা বিএনপির দপ্তর সম্পাদক টিপু সুলতান, বিএনপি নেতা সাবু, লোহাগড়া উপজেলা যুবদলের আহবায়ক মাহমুদ খান, পৌর বিএনপি নেতা আজাদ সহ ৯ জনের নামে ১৫ এপ্রিল লোহাগড়া থানায় হয়রানিমূলক মামলা দায়ের করেছেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

মামলা নং-২৬। অভিযুক্ত ক্লিনিক মালিক জাকির হোসেনসহ ডাক্তার পলাতক থাকায় বক্তব্য পাওয়া যায়নি। লোহাগড়া থানার অফিসার ইনচার্জ সৈয়দ আশিকুর রহমান বলেন, ক্লিনিকের ওই ঘটনায় দুটি মামলা দায়ের হয়েছে। আসামী আটকের চেষ্টা চলছে।

ইকবাল হাসান,নড়াইল প্রতিনিধি