নিয়মিত সিঁড়ি বেয়ে ওঠা-নামা করলে যেসব উপকার হয়

Stair Climbing

নিত্যদিনের চলাফেরায় সিঁড়ি ভাঙার প্রয়োজন পড়ে প্রায় সবারই। অফিস, ওভারব্রিজ, শপিং মল কিংবা বাসায় সিঁড়ি ব্যবহারের অভ্যাস করুন। এতে আপনার অজান্তেই মিলবে অনেক উপকারিতা। আমাদের ব্যস্ত জীবনে শরীরচর্চার জন্য আলাদা করে সময় বের করা মুশকিল। তাই কিছু পরিবর্তন নেই সেই অভাব অনেকটা ঘুচিয়ে দেয়া সম্ভব।

সিঁড়ি দিয়ে উঠলে কিছুটা কষ্ট হবে কিন্তু পাশাপাশি বেশ ভালো একটি কার্ডিয়োভাস্কুলার একসারসাইজও হবে। সুস্থ থাকার জন্য সিঁড়িতে ওঠানামা বেছে নিতে পারেন। নিয়মিত সিঁড়ি ওঠার অভ্যেস থাকলে হৃদরোগের সম্ভাবনা কমে। এছাড়া উচ্চরক্তচাপ এবং ডায়াবিটিসের সম্ভাবনাও কমে।

দিনে যদি আপনি অন্তত ৪০টি সিঁড়ি ভাঙার অভ্যাস করুন, তা হলেই আপনার পা ক্রমশ শক্তপোক্ত হয়ে উঠবে। পা শক্তিশালী হয়ে ওঠার পাশাপাশি এই কার্ডিও অ্যাকটিভিটির সৌজন্যে আপনার দমও ক্রমশ বাড়তে থাকবে।

তবে কিছু বিষয়ে খেয়াল রাখতে হবে- হাঁটুতে কোনো সমস্যা থাকলে সিঁড়ি ভাঙার আগে ডাক্তারের পরামর্শ নিন।আপনার পুরো পা যেন সিঁড়িতে থাকে, সেদিকে লক্ষ রাখতে হবে। পায়ে বাড়তি চাপ দেবেন না।

সিঁড়ি দিয়ে ওঠা-নামা করার কিছু উপকারিতা-

সিঁড়ি দিয়ে বারবার ওঠানামা করলে মেটাবলিজম রেট বাড়ে। যা আমাদের ওজন কমাতে সাহায্য করে।

সিঁড়ি দিয়ে ওঠা-নামা করলে অস্টিওরপোরোসিসের সম্ভাবনা অনেকখানি কমানো সম্ভব হয়।

আরও পড়ুনঃ তালমিছরির যে গুনগুলো জানলে অবাক হবেন আপনি!

যেকোনো রকমের ফিজিক্যাল অ্যাক্টিভিটি আমাদের শরীরের সঙ্গে মনও ভালো রাখতে সাহায্য করে। সিঁড়ি ভাঙার ফলে ভাঙার ফলে আমাদের মনও খুব ভালো থাকে।

সিঁড়ি দিয়ে ওঠা-নামা করলে আপনার হার্টের পাশাপাশি ফুসফুসও ভালো থাকবে। এর ফলে ফুসফুসের কাজ করার ক্ষমতা অনেকটাই বাড়ে। তাই সুস্থ থাকতে নিয়মিত সিঁড়ি ব্যবহার করুন।