তরুণীর শরীরে হাত ,শেষ পা ধরে মাফ চাইতে হলো

In the end I had to apologize

বরিশালে সিএনজির মধ্যে তরুণীর স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেওয়ার পর পা ধরে মাফ চাইতে বাধ্য করার একটি ভিডিও ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে।

সাদিয়া আক্তার মীম নামে ওই তরুণীর ফেসবুক আইডি থেকে পুরো ঘটনার বিবরণসহ একটি ভিডিও পোস্ট করা হয়। সেখানে তিনি লেখেন, গত রবিবার বরিশাল নগরীর নথুল্লাবাদ থেকে সিএনজিযোগে সদর রোডের বিবিরপুকুর পাড় যাচ্ছিলেন তিনি।

সিএনজির মধ্যেই মধ্যবয়সী এক ব্যক্তি তার পাশে এসে বসে। তরুণী তার থেকে দূরত্ব বজায় রাখতে যতই সরে বসেন, ওই ব্যক্তি ততটা তরুণীর কাছে ঘেঁষে বসার চেষ্টা করে। একপর্যায়ে ওই তরুণীর স্পর্শকাতর স্থানে হাত দিয়ে উত্ত্যক্ত করতে থাকেন তিনি।

নিরূপায় হয়ে হাতে নাতে ধরার জন্য বিষয়টি মুঠোফোনে ভিডিও করেন ওই তরুণী। সিএনজি’টি সদর রোডে আসার সাথে সাথেই হাতে নাতে ধরা হয় মধ্যবয়সী ব্যক্তিকে। এরপর ওই তরুণী নিজেই মারধর করেন তাকে। শেষে পথচারীরা ওই তরুণীর পক্ষ নিয়ে তার পা ধরে মাফ চাইতে বাধ্য করেন ওই ব্যক্তিকে।

এই পোস্টের পরই ওই তরুণীকে ফেসবুকে অনেকে সাধুবাদ জানিয়েছেন। অনেকে আবার সমালোচনা করেছেন।

আরও পড়ুনঃ ভিডিও ছড়িয়ে দেয়ার ভয় দেখিয়ে ভাবিকে দীর্ঘদিন ধর্ষণ

বিএম কলেজ ছাত্রী ও অনলাইনে কাপড়ের ব্যবসায়ী ওই তরুণী জানান, ভিডিওটি ভাইরাল হওয়ার পর নারী হয়ে তিনি কেন এতো আগ্রাসী ভূমিকা পালন করেছেন সেজন্য তার পরিবার স্থানীয়ভাবে চাপে রয়েছে।