মোবাইলে প্রেম,ডেকে নিয়ে ৬ জন মিলে পাহাড়ি নারীকে গণধর্ষণ

6 people gang-raped a hill woman after calling her

বান্দরবানের লামা উপজেলায় পাহাড়ি নারীকে গণধর্ষণের ঘটনায় নুরুল হুদা নামে ১ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বিয়ের আশ্বাসে ডেকে নিয়ে প্রেমিকসহ ৬ জন মিলে ওই নারীকে গণধর্ষণ করে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সোমবার রাত ১০টার দিকে উপজেলার আজিজনগর ইউনিয়নের কাটা পাহাড় এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়। গ্রেফতার নুরুল হুদা উপজেলার সরই ইউনিয়নের পুইট্টা পাড়ার মৃত ইসহাকের ছেলে।

আজিজনগর ইউনিয়ন পরিষদের ৯নং ওয়ার্ডের সদস্য আব্দুল হারেছ জানান, নুরুল হুদা পেশায় দিনমজুর। বিধবা ওই নারীকে ফাঁদে ফেলে ৬ জন মিলে ধর্ষণ করে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, মুঠোফোনের মাধ্যমে ওই নারীর সঙ্গে নুরুল হুদার পরিচয় হয়। এর সূত্র ধরে উভয়ের মধ্যে তৈরি হয় প্রেমের সম্পর্ক। বিভিন্ন সময় ওই নারীকে বিয়ের আশ্বাসও দেন নুরুল হুদা।

একপর্যায়ে নুরুল হুদার কথামতো গত রোববার বিকেলে তিনি আজিজনগর ইউনিয়নের ক্লিপটন গ্রুপের বাগানের পাশে গেলে নুরুল হুদাসহ একে একে ছয়জন তাকে ধর্ষণ করে। পরে ওই নারীর ব্যাগে থাকা নগদ ৩০ হাজার টাকাও নিয়ে কৌশলে পালিয়ে যান নুরুল হুদা।

ঘটনার পরদিন সোমবার সকালে ভুক্তভোগী নুরুল হুদাসহ আরও ৫ জনকে আসামি করে লামা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করেন।

আরও পড়ুনঃবাড়িতে একা পেয়ে ১০ম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ

এদিকে স্থানীয়রা জানান, ওই নারী লকডাউনের আগে ঢাকার একটি বিউটি পার্লারে কাজ করতেন। স্বামী মারা যাওয়ার পর মুঠোফোনে নুরুল হুদার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে তার।

লামা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মিজানুর রহমান বলেন, গ্রেফতারকৃতকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। অপর অভিযুক্তদেরকেও গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

0 Shares
  • 0 Facebook
  • Twitter
  • LinkedIn
  • Mix
  • Email
  • Print
  • Copy Link
  • More Networks
Copy link
Powered by Social Snap