ঠাকুরগাঁওয়ে প্রথম মহিলা ইউপি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন টেলিনা সরকার হিমু

Thakurgaon news

ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জ উপজেলায় গত ২৮ নভেম্বর অনুষ্ঠিত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ১১নং বৈরচুনা ইউনিয়নে টেলিনা সরকার হিমু জেলার প্রথম মহিলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীক নিয়ে ৭৪৭৭ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম স্বতন্ত্র প্রতিদ্বন্দ্বী আইয়ুব আলী চৌধুরী চশমা প্রতীকে পেয়েছেন ৩০৭০ ভোট।

শুধু ঠাকুরগাঁও জেলা নয়, বৃহত্তর দিনাজপুর জেলার প্রথম মহিলা ইউপি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন তিনি। বিষয়টি এখন জেলাজুড়ে মানুষের মুখে মুখে আলোচনায়।
প্রসঙ্গত সেলিনা সরকার হিমুর স্বামী নুরে আলম সিদ্দিকী দুলাল পীরগঞ্জ উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে অংশ নিয়ে তিনি অল্প ভোটের ব্যবধানে হেরে যান। দু’বছর আগে দুলালের অকাল মৃত্যু হয় । স্বামীর অবর্তমানে এবার চেয়ারম্যান পদে আ’লীগের মনোনয়ন পেয়ে নির্বাচনী লড়াইয়ের মাঠে অবতীর্ণ হয়েছিলেন হিমু। তিনি আ’লীগের প্রার্থী হওয়ায় উপজেলা ও জেলা আ’লীগের নেতাকর্মিরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে তার নির্বাচনী প্রচার প্রচারণায় অংশ নিয়েছেন। সাধারণ ভোটাররা বিশেষত মহিলা ভোটাররা ব্যাপক উৎসাহে হিমুর পক্ষে সাড়া- সমর্থন দিয়েছিলেন।
নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান টেলিনা সরকার হিমু বলেন, জনগণ আমাকে ভালোবেসে নির্বাচিত করেছে। আমি সুখে-দুঃখে তাদের পাশে থেকে সাধ্যমত কাজ করে যাব ইনশাআল্লাহ। । আমি বিশ্বাস করি এই বিজয়ে নারীরা আরও এক ধাপ এগিয়ে যাবে ও দল শক্তিশালী হবে।
ঠাকুরগাঁও জেলা আওয়ামী লীগের সহ- সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য সেলিনা জাহান লিটা বলেন, প্রথমে আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই যিনি নারীদের সর্বক্ষেত্রে অগ্রাধিকার দেন। তিনি চান নারীরাও দেশের উন্নয়নে এগিয়ে আসুক। সেই ধারাবাহিকতায় তিনি টেলিনা সরকার হিমুকে মনোনয়ন দিয়েছিলেন এবং আমরা বিশাল ভোটের ব্যবধানে জয়লাভ করেছি। আমি মনে করি এ বিজয় আওয়ামী লীগসহ শেখ হাসিনার হাতকে আরও শক্তিশালী করবে। হিমুর এ বিজয়ে আমি প্রিয় এলাকার জনগন ও দলের নেতাকর্মীদের আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই।

হুমায়ুন কবির,ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি

0 Shares
  • 0 Facebook
  • Twitter
  • LinkedIn
  • Mix
  • Email
  • Print
  • Copy Link
  • More Networks
Copy link
Powered by Social Snap