জাপানের আঘাত হানছে প্রলয়ঙ্করী সুপার টাইফুন হাগিবিস

Typhoon Haggis could haunt Scotland

জাপানের আঘাত হানছে প্রলয়ঙ্করী সুপার টাইফুন হাগিবিস। ১৯৫৮ সালের পর এত শক্তিশালী টাইফুন দেশটিতে আর আঘাত হানেনি।

কানোগোয়া নামের শক্তিশালী ওই টাইফুনে বারো শতাধিক মানুষ নিহত হয়েছিল। বিবিসির এক প্রতিবেদনে এই দুর্যোগের খবর জানানো হয়েছে।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে, সুপার টাইফুন হাগিবিস এখন জাপান উপকূলের প্রায় কাছাকাছি চলে এসেছে। ১৮০ কিলোমিটার গতিতে ছুটতে থাকা এই টাইফুনের ফলে গত ৬০ বছরের মধ্যে ভারী বৃষ্টিপাত, বন্যা এবং ভূমিধসের ঘটনা ঘটবে বলে আশঙ্কা করেছে দেশটির আবহাওয়া সংস্থা।

হাগিবিস নামের শক্তিশালী এই টাইফুন শনিবার জাপানের অন্যতম জনবহুল দ্বীপ হোনসুতে আঘাত হানতে পারে বলে জানিয়েছে সংস্থাটি।

ইতোমধ্যে দোকানপাট, কল-কারখানা ও ট্রেন চলাচল বন্ধ করা হয়েছে। শনিবার দেশটিতে অনুষ্ঠেয় রাগবি ওয়ার্ল্ড কাপ ও ফরমুলা ওয়ান গ্রান্ড পিরিক্সও এর কারণে ব্যাহত হবে।

যেসব এলাকা সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার ঝুঁকিতে আছে সেসব অঞ্চলের মানুষগুলোকে নিরাপদ স্থানে সরে যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

টাইফুন আঘাত হানার আগে মানুষ নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি কেনার কারণে সুপার মার্কেটগুলোতে পণ্যের মজুত কমে গেছে।

আরও পড়ুনঃ সিরিয়ায় পিকেকের বিরুদ্ধে অভিযানে নিহত ১০৯ঃ এরদোগান

হাগিবিস শব্দের অর্থ হলো গতি। ফিলিপাইনি ভাষার শব্দ টাগালগ থেকে এর উৎপত্তি। আবহাওয়া সংস্থার এক কর্মকর্তা বিবিসিকে বলেছেন, ‘এই টাইফুনের কারণে রেকর্ড মাত্রার বৃষ্টিপাত ও ঝোড়ো হাওয়া বইবে। সঙ্গে বন্যা ও ভূমিধসের আশঙ্কা তো থাকছেই।’

গতমাসেই ফেক্সাই নামের একটি টাইফুনের আঘাতে দেশটির বেশ কিছু এলাকার অন্তত ৩০ হাজার বাড়িঘর ধ্বংস হয়ে যায়। যেগুলো পুননির্মাণের কাজই এখনো শেষ হয়নি। এদিকে টাইফুন হাগিবিস মোকাবিলায় বেশ কিছু উপকূলীয় এলাকার আশ্রয় কেন্দ্র খুলে দেয়া হয়েছে।

0 Shares
  • 0 Facebook
  • Twitter
  • LinkedIn
  • Mix
  • Email
  • Print
  • Copy Link
  • More Networks
Copy link
Powered by Social Snap