জঙ্গলে টর্চলাইট জ্বালিয়ে স্বামী দেখলেন ধর্ষণ হচ্ছে স্ত্রী

The husband saw the wife being raped while lighting the flashlight in the forest!

নওগাঁর ধামইরহাট উপজেলার নজিপুর এলাকা রাতে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিয়ে বাইরে বের হন স্ত্রী। ঘরে ফিরতে দেরি দেখে টর্চলাইট জ্বালিয়ে স্ত্রীকে খুঁজতে থাকেন স্বামী। কিছুক্ষণ পর দেখেন বাড়ির পাশের জঙ্গলে খড়ের গাদায় তার স্ত্রীর ওপর এক প্রতিবেশী।

রোববার রাতে নওগাঁর ধামইরহাট উপজেলার নজিপুর এলাকা থেকে অভিযুক্ত মো. দুলাল হোসেনকে আটক করেছে পুলিশ। তিনি একই এলাকার মতিয়ার হোসেনের ছেলে।

জানা গেছে, ভুক্তভোগী ওই নারী বাক-প্রতিবন্ধী। ঘটনার দিন রাতে স্বামীর সঙ্গে ঘুমিয়ে পড়েন তিনি। পরে রাত আনুমানিক ১টার দিকে প্রকৃতির ডাকে তিনি বাইরে বের হন। ঘরে ফিরতে দেরি দেখে স্বামী টর্চলাইট জ্বালিয়ে স্ত্রীকে খুঁজতে থাকেন।

একপর্যায়ে নিজ বাড়ির পশ্চিম পাশে দুটি খড়ের গাদার মাঝে দেখেন স্ত্রীর পরনের জামা-কাপড় খুলে ধর্ষণ করছে দুলাল। এমন ঘটনা দেখে ভুক্তভোগীর স্বামীর চিৎকারে স্থানীয় ইউপি সদস্যসহ স্থানীয়রা এগিয়ে আসেন। পরে দুলাল পালাতে চেষ্টা করলে স্থানীয়রা তাকে ধরে ফেলেন।

পালানোর সময় স্থানীয়দের মাধ্যমে মারধরের স্বীকাার হওয়ায় দুলালকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। পরে সেখান থেকে তাকে রাজশাহীতে নেয়ার পরামর্শ দেন চিকিৎসকরা। এর আগে, ১৯ ডিসেম্বর রাতে ধামইরহাট উপজেলার উমার ইউনিয়নের চকিলাম এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় দুলালের বিরুদ্ধে থানায় ধর্ষণ মামলা করেন ভুক্তভোগী নারী।

আরও পড়ুনঃ স্যার,সাগর আমাকে বিয়ে নয় খালি ধর্ষণ করতে চায়!

ধামইরহাট থানার ওসি (তদন্ত) মো. আবুল কালাম আজাদ জানান, অভিযুক্ত দুলালকে রাজশাহী হাসপাতালে পাঠানো হলেও স্বজনরা তাকে বেসরকারিভাবে চিকিৎসা দেন। রোববার রাতে সেখান থেকে বাড়ি ফেরার পথে তাকে গ্রেফতার করা হয়।