চাকরি দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে দলবেঁধে ধর্ষণ

rape

রাজধানীর সবুজবাগ এলাকায় এক নারীকে (৩৫) চাকরি দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে দলবেঁধে ধর্ষণের অভিযোগে ২ জনকে আটক করা হয়েছে। সোমবার (১ মার্চ) দিবাগত রাতে মাদারটেক এলাকার একটি বাসায় অভিযান চালিয়ে তাদেরকে আটক করে সবুজবাগ থানা পুলিশ।

গ্রেফতাররা হলেন- বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) কর্মচারী সনজিব কুমার দাস ও তার সহযোগী আনিকা।

মঙ্গলবার (২ মার্চ) দুপুরে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) সবুজবাগ জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার (এসি) রাশেদ হাসান বিষয়টি জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, কেরানীগঞ্জের বাসিন্দা এক নারীকে ব্যাংকে চাকরি দেয়ার নাম করে গত ১৫ ফেব্রুয়ারি দক্ষিণ মাদারটেকের একটি বাসায় ডেকে নিয়ে যান সনজিব দাস। তার সঙ্গে রাসেল, জামাল, আজিজুর রহমান ও আনিকা নামে এক নারী ওই বাসায় ছিলেন। সেখানেই ওই নারীকে সনজিবসহ বাকিরা ধর্ষণ করেন।

এ ঘটনায় গতকাল সোমবার সবুজবাগ থানায় সনজিবকে ১ নম্বর আসামি করে ৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন ভুক্তভোগী। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে আনিকা ও সনজিবকে আটক করে। বাকিদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত আছে বলে জানান ওসি রাশেদ হাসান।

ধর্ষণের শিকার ওই নারী মামলার এজাহারে উল্লেখ করেন, ৫ বছর আগে স্বামীর সঙ্গে বিচ্ছেদ হয় তার। এরপর একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করে জীবিকা নির্বাহ করতেন।

গত ১০ ফেব্রুয়ারি পূর্বপরিচিত সনজিবের সঙ্গে সাক্ষাৎ হলে কুশল বিনিময়ের সময় তিনি তার সন্ধানে ব্যাংকে ভালো চাকরি থাকার কথা জানান। পরে চাকরি দেয়ার কথা বলে মাদারটেকের ওই বাসায় ডেকে নেন। এক পর্যায়ে সেখানে তাকে গণধর্ষণ করা হয়।

আরও পড়ুনঃ নওগাঁর বদলগাছীতে ছাগল কিনতে এসে গৃহবধূকে ধর্ষণ চেষ্টায় আটক ২

সেখানে উপস্থিত নারী আনিকা এ কাজে তাদেরকে সহায়তা করেন। এ ঘটনা জানাজানি হলে সনজিব ওই নারীকে মেরে ফেলার হুমকি দেন বলেও এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে।