চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ,প্রচুর রক্তক্ষরণ - Metronews24চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ,প্রচুর রক্তক্ষরণ - Metronews24

চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ,প্রচুর রক্তক্ষরণ

Fourth grade student raped on the way back to private in Barguna

বরগুনায় প্রাইভেট পড়ে ফেরার পথে চতুর্থ শ্রেণির এক ছাত্রী (১২) ধর্ষণ করা হয়েছে। সোমবার সন্ধ্যায় সদর উপজেলার এম বালিয়াতলী ইউনিয়নের লতাকাটা এলাকায় ঘটনা এ ঘটে।

গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় ওই ছাত্রীকে প্রথমে বরগুনা জেনারেল হাসপাতাল ও পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত শাওন (১৯) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

স্কুলছাত্রীর মা জানান, তার মেয়ে স্থানীয় একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে চতুর্থ শ্রেণিতে পড়ে। গত দুই মাস ধরে সে বাড়ির কাছেই মতি মিয়ার বাড়িতে প্রাইভেট পড়তে যায়।

সোমবার সন্ধ্যায় প্রাইভেট পড়া শেষে বাড়ি ফেরার সময় স্থানীয় নুরুল ইসলামের ছেলে শাওন (১৯) তাকে মতি মিয়ার বাড়ির পেছনে নিয়ে ধর্ষণ করে।

ধর্ষণের ফলে রক্তাক্ত অবস্থায় বাড়িতে ফিরে মেয়েটি অজ্ঞান হয়ে পড়ে। এ অবস্থা দেখে তিনি সন্ধ্যা ৭টার দিকে মেয়েকে বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যান।

আরও পড়ুনঃ পিইসি পরীক্ষার্থীকে ধর্ষণ করল রিকশাচালক

সেখানে প্রাথমিকভাবে রক্তক্ষরণ বন্ধে চিকিৎসা দেয়ার পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য দ্রুত বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

বরগুনা জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসক নীহার রঞ্জন বৈদ্য বলেন, শিশুটির যৌনাঙ্গে গুরুতর যখম হওয়ায় প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়েছে।

আমরা প্রাথমিকভাবে তাকে চিকিৎসা দিয়েছি। রক্তক্ষরণের ফলে তার অবস্থার অবনতি হয়েছে। যে কারণে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে বরিশালে পাঠানো হয়েছে।

এম বালিয়াতলী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শাহনেওয়াজ সেলিম বলেন, আমি বিষয়টি পুলিশকে অবগত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য অনুরোধ করেছি।

বরগুনা সদর থানা পুলিশের ওসি (তদন্ত) হুমায়ুন কবির বলেন, রাতেই অভিযুক্ত শাওনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মেয়েটিকে ধর্ষণের কথা সে স্বীকার করেছে । তার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা হয়েছে। পরে আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

Facebook Comments
0