গরুর মাংস খাওয়ার কথা বলায় অভিনেত্রীকে গণধর্ষণ ও খুনের হুমকি

Actress Debolina Dutta

গরুর মাংস খাওয়া নিয়ে একটি অনলাইন আলাপচারিতায় মন্তব্য দেওয়ায় পশ্চিমবঙ্গের জনপ্রিয় অভিনেত্রী দেবলীনা দত্তকে গণধর্ষণ ও খুনের হুমকির অভিযোগ পাওয়া গেছে।

হুমকি থেকে বাদ পড়েনি তার মাও, তাকে নিয়েও চলছে ন্যাক্কারজনক মন্তব্য। এসব অভিযোগে যাদবপুর থানায় এফআইআর করবেন অভিনেত্রী দেবলীনা। এবিপি আনন্দের এক টকশো থেকে ঘটনার সূত্র।

টকশোতে দেবলীনা বিজেপি নেতা দিলীপ ঘোষকে প্রশ্ন করার সময় গায়ক, পরিচালক অনিন্দ্য চক্রবর্তীর কথার সূত্র ধরে জানান, ‘নিরামিষভোজী হলেও প্রয়োজনে তার বাড়িতে গিয়ে নবমীর দিন দেবলীনা গরুর মাংস রান্না করে দিতে পারন।’

খাদ্য-খাদ্যাভাস এবং ধর্ম বিষয়ে তিনি এমনই মত প্রকাশ করেন। এরপরই সোশ্যাল মিডিয়ায় ধুন্ধুমার অশ্লীল আক্রমণ শুরু হয় দেবলীনার বিরুদ্ধে।

এই প্রসঙ্গে দেবলীনা বললেন, ‘এখন দেখছি এটাই রেওয়াজ। কোনও নারী অন্য স্বরে কথা বললেই তাকে গণধর্ষণ আর গলা কেটে দেওয়ার হুমকি দেওয়া যায়? বিজেপির কেন্দ্রীয় মন্ত্রী, গায়ক ও অভিনেতা বাবুল সুপ্রিয় এক ইন্টারভিউতে বলেছিলেন তিনি কলেজ লাইফে বহুবার গরুর মাংস খেয়েছেন, তা নিয়ে কিন্তু কোনও প্রশ্ন করা হয়নি যে উনি কেন গোমাংস খেলেন?’

‘অথচ সেই বিজেপি কর্মী পেশায় উকিল তরুণজ্যোতি তিওয়ারি আমাকে এ বিষয়ে কথা বলার জন্য হুমকিই নয়, আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার হুমকিও দেন। তিনি কেমন উকিল যার পোস্টের তলায় একজন নারীর মাকে নিয়ে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করা হচ্ছে আর তিনি চুপ!’

আরও পড়ুনঃ নতুন সিনেমার শিডিউল দিতে পারছে না দীপিকা পাড়ুকোন

বিষয়টি নিয়ে অনিন্দ্য চক্রবর্তী বলেন, ‘কোনও রাজনীতি থেকে নয়, একজন নাগরিক হিসেবে আমি আমার কথা বলেছিলাম। তা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় যা লেখা হচ্ছে ভাবতেই পারিনি। ভোট আসছে। তার আগে অনেক বিষয় নিয়ে কথা হয়। এই যে মানুষ কমেন্ট করছেন তাদেরও স্বাধীন দেশের নাগরিক হিসেবে মত প্রকাশের অধিকার আছে।’ সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা।