কেওয়া গাউছিয়া শফি মঞ্জিলে তিন শাহ্জাদাকে মাইজভান্ডারী ত্বরিকায় খেলাফত প্রদান

gazipur sri

গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার কেওয়া আকন্দবাড়ী গাউছিয়া শফি মঞ্জিলে তিন শাহ্জাদাকে মাইজভান্ডারী ত্বরিকার প্রচার ও প্রসারের উদ্দেশে খেলাফত প্রদান করা হয়েছে।

শুক্রবার মাসিক মাহফিলে ওই রাত ৯টায় খেলাফত প্রদানের পর নব নিযুক্ত খলীফা মহোদয়গণকে মাইজহভান্ডারী ত্বরিকার শাজরাহ্ শরীফ প্রদান করা হয়।

আওলাদে রাসুল (সাঃ) গাউছে জামান সৈয়দ শফিউল বশর মাইজভান্ডারীর খেলাফতপ্রাপ্ত খলীফা কেওয়া গাউছিয়া শফি মঞ্জিলের পীর হযরত মাওলানা শাহ মো. নূরুজ্জামান আকন্দ মাইজভান্ডারীর তিন শাহ্জাদা হলেন মো. আবু বাক্কার ছিদ্দিক আকন্দ মাইজভান্ডারী, মো. রাশেদুল ইসলাম আকন্দ মাইজভান্ডারী ও মো. রায়হানুল ইসলাম আকন্দ মাইজভান্ডারী।

কর্মজীবনে মো. আবু বাক্কার ছিদ্দিক আকন্দ মাইজভান্ডারী শ্রীপুর মুক্তিযোদ্ধা রহমত আলী সরকারি কলেজের প্রভাষক ও দ্য ডেইলী স্টারে কর্মরত গাজীপুরের একজন সংবাদকর্মী। মো. রাশেদুল ইসলাম আকন্দ মাইজভান্ডারী বাংলাদেশ নৈৗ বাহিনীতে কর্মরত একজন পেটি অফিসার ও মো. রায়হানুল ইসলাম আকন্দ মাইজভান্ডারী গণিত বিষয়ে উচ্চতর ডিগ্রীধারী ও শ্রীপুরের মাওনা চৌরাস্তার একটি পোশাক রপ্তানীকারক প্রতিষ্ঠানের জ্যৈষ্ঠ নির্বাহী কর্মকর্তা।

খেলাফত প্রদানশেষে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে প্রতি মাসের ন্যায় যথারীতি মিলাদ-কিয়াম ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। এতে বাংলাদেশ এবং বিশ্বের আপামর মানুষের কল্যান ও চলমান করোনা পরিস্থিতি থেকে মুক্তির জন্য দোয়া করা হয়। একই সাথে মাইজভান্ডার শরীফের যুগল গাউছুল আজম হযরত শাহ আহমদ উল্লাহ মাইজভান্ডারী (হযরত কেবলা রহঃ) ও শাহ গোলামুর রহমান মাইজভান্ডারী (বাবা ভান্ডারী কেবলা কাবা রহঃ) এর প্রবর্তিত মাইজভান্ডারী ত্বরিকা প্রচার ও প্রসারে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।
গাজীপুর প্রতিনিধি