কাশ্মীরে মেয়েরা সব চেয়ে বেশি ভোগান্তিতে

Kashmiri Girls Stranded in Patna

কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করে এটিকে কেন্দ্র শাসিত অঞ্চল ঘোষণা দিয়েছে ভারত সরকার। এতে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে ওই এলাকায়।

ইন্টারনেট, টেলিফোন, মোবাইল নেটওয়ার্ক, ডিশ সংযোগসহ সব ধরনের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয় ভারত সরকার। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে মোতায়েন করা হয় সংখ্যক সামরিক সদস্য।

এমন পরিস্থিতিতে চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন কাশ্মীরের স্থানীয় বাসিন্দারা। এতে সবচেয়ে বেশি ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে মেয়েদের।

পড়াশোনার জন্য কেরালা থাকতে হয় ২০ বছর বয়সী তরুণী উজমা জাভেদকে। পরিবারের সঙ্গে ঈদ পালনের জন্য কাশ্মীরে ফিরেছিলেন উজমা।

কিন্তু ঈদ তো দূরের, ঘরে ফিরে বন্দিদশাতেই কেটে গেল এই উৎসব। একটি সাক্ষাৎকারে উজমা জানিয়েছেন, ওই সময়টা সব চেয়ে বেশি সমস্যার মুখোমুখি হতে হয়েছে কাশ্মীরি মেয়েদের।

কাশ্মীরের তরুণী উজমা জানান, এই সময় প্রতিটা মুহূর্ত উৎকণ্ঠায় কেটেছে তার। শ্রীনগরে তাদের দোতলা বাড়ির জানালা থেকে বারবার চোখ চলে যেত রাস্তায়। এই বুঝি কিছু হলো।

উজমা জানিয়েছেন, সব চেয়ে বেশি দুশ্চিন্তা হয়েছে, আশপাশের বান্ধবীদের জন্য। প্রায় এক সপ্তাহ ওদের কোনও খবর পাননি তিনি।

আরও পড়ুনঃফুঁসছে জম্মু-কাশ্মীর,যেকোনো সময় চূড়ান্ত বিস্ফোরণ

তিনি আরও বলেছেন, ‘বাবা বা ভাইকেও আমি বাড়ির বাইরে বেরোতে দিতে চাইছিলাম না সে সময়। কিন্তু কোনও উপায়ও ছিল না। বাড়ির নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিস এবং রুটিটুকু আনার দরকারে বেরোতেই হচ্ছিল।’

বাড়ির সামনেই তখন বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে সংঘর্ষ বেধেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর। মায়ের সঙ্গে একা বাড়িতে উজমা আতঙ্কে ছিলেন।

অনেক রাতে যখন বাবা ও ভাই ঘরে ফিরলেন, ততক্ষণে উজ়মাকে নিয়ে ছুটতে হয়েছে হাসপাতালে। কারণে আতঙ্কে, তার রক্তচাপ বেড়ে গিয়েছিল।

সূত্র: আল-জাজিরা, দ্য ন্যাশন

0 Shares
  • 0 Facebook
  • Twitter
  • LinkedIn
  • Mix
  • Email
  • Print
  • Copy Link
  • More Networks
Copy link
Powered by Social Snap