কঠিন হয়ে পড়ছে আইপিএল লড়াই

RCB go from cruise control to heavy turbulence

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) শেষপর্বে চলে এসেছে। তবে সময় যত এগুচ্ছে ততই কঠিন হয়ে পড়ছে এই লড়াই। এখনও পর্যন্ত মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স ছাড়া অন্য কোনও দলের ক্ষেত্রেই বলা যাবে না যে, তারা শেষ চারে পৌঁছে গেছে।

কারণ শনিবার দুপুরের ম্যাচে দিল্লি হারার পর রাতের ম্যাচে হায়দারাবাদের কাছে ৫ উইকেটে হেরে গেলেন বিরাট কোহলিরা। ফলে দিল্লি–ব্যাঙ্গালোর দু’দলই এখনও ১৪ পয়েন্টেই দাঁড়িয়ে রইল।

অন্যদিকে, ১৩ ম্যাচ খেলে ১২ পয়েন্টে পৌঁছে গেল হায়দারাবাদও। পাঞ্জাব, রাজস্থান এবং কেকেআরেরও বর্তমানে ১২ পয়েন্ট।

এদিন ম্যাচে কার্যত ব্যাটিং বিপর্যয়ে ভুগল আরসিবি। ওপেনার ফিলিপ (৩২) এবং এবি ডি’ভিলিয়ার্স (২৪) বাদে কেউই তেমন রান পেলেন না। উল্টো হায়দারাবাদ বোলাররা কার্যত দমিয়ে রাখলেন বিরাট কোহলিদের।

দু’টি করে উইকেট পেলেন জেসন হোল্ডার এবং সন্দীপ শর্মা। একটি করে উইকেট পান নাদিম, নটরাজন এবং রশিদ খান। নির্ধারিত ২০ ওভারে সাত উইকেটে ১২০ রানই তোলেন কোহলিরা।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে বাংলার ঋদ্ধিমান সাহা এবং মনীশ পাণ্ডের ব্যাটে ভর করে ৩৫ বল বাকি থাকতেই ৫ উইকেটে ম্যাচ জিতে নেয় হায়দারাবাদ। ৩৯ রানের দুরন্ত ইনিংস খেলেন ঋদ্ধি। মনীশ করেন ২৬ রান।

শেষদিকে ১০ বলে অপরাজিত ২৬ রান করেন জেসন হোল্ডার।

টুর্নামেন্টে এখন আর বাকি কেবল ৪ টি ম্যাচ। মুম্বাই ১৮ পয়েন্ট নিয়ে প্রথম স্থানেই শেষ করবে। নিজেদের শেষ ম্যাচে আরসিবি এবং দিল্লি পরস্পরের মুখোমুখি হবে। যে জিতবে সেই দ্বিতীয় স্থানে যাবে।

আরও পড়ুনঃ গেইলের বিশ্ব রেকর্ডের দিনে হেরে গেল পাঞ্জাব

কিন্তু যে হারবে সেই দলটির সঙ্গে বাকি ৪টি দলের লড়াই হবে তৃতীয় এবং চতুর্থ স্থানের জন্য। আর এখানেই কিছুটা হলেও পিছিয়ে কেকেআর। কারণ বাকি দলগুলোর মধ্যে তাদেরই নেট রানরেট অনেক কম।

তাই শেষম্যাচে রাজস্থানের বিরুদ্ধে বড় ব্যবধানে জিততে হবে কলকাতাকে। পাশাপাশি তাকিয়ে থাকতে হবে অন্যান্য ম্যাচগুলোর দিকেও।