ইরানে কোনো হামলা হলে মধ্যপ্রাচ্যে সর্বাত্মক যুদ্ধ বেধে যাবে

Iran Hussein Dehkan

ইরানের সর্বোচ্চ নেতার সামরিক উপদেষ্টা ও সাবেক প্রতিরক্ষামন্ত্রী হোসেইন দেহকান বলেছেন,ইরান নিজের সামরিক শক্তি নিয়ে কারো সঙ্গে কোনো ধরনের আলোচনায় বসবে না।

আমেরিকার নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র শক্তি নিয়ে তেহরানের সঙ্গে আলোচনায় বসতে চান বলে পশ্চিমা গণমাধ্যমে যে খবর বেরিয়ে সে সম্পর্কে প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে ব্রিগেডিয়ার জেনারেল দেহকান একথা বলেন।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প গত সপ্তাহে ইরানের পরমাণু স্থাপনায় হামলা চালাতে চেয়েছিলেন বলে মার্কিন দৈনিক নিউইয়র্ক টাইমস যে খবর দিয়েছে সে সম্পর্কে জেনারেল দেহকান হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, সীমিত আকারের ট্যাকটিক্যাল যে কোনো হামলা মধ্যপ্রাচ্যে সর্বাত্মক যুদ্ধে রূপ নিতে পারে।

মধ্যপ্রাচ্য বা আমেরিকার পক্ষে সে যুদ্ধের ধকল সামলানো সম্ভব নয় বলে তিনি উল্লেখ করেন।

ইরানের সাবেক প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেন, আমরা যুদ্ধ করতে চাই না, সেইসঙ্গে নিছক গালগল্প করার জন্যও আলোচনায় বসতে আগ্রহী নই।

ইরানের পরমাণু স্থাপনাগুলোতে আইএইএ’র পরিদর্শন সম্পর্কে জেনারেল দেহকান বলেন, আইএইএ’র পরিদর্শকরা যতদিন ‘গুপ্তচরবৃত্তি’ না করবে ততদিন এ পরিদর্শন চলতে বাধা নেই।

আরও  পড়ুনঃ যে কারনে লাদেনকে হত্যার কথা পাকিস্তানের কাছে গোপন রাখেছে ওবামা

পারস্য উপসাগরীয় কয়েকটি আরব দেশ ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপনের যে পদক্ষেপ নিয়েছে তার সমালোচনা করে ইরানের সর্বোচ্চ নেতার এই উপদেষ্টা বলেন, পশ্চিম এশিয়ায় ইসরায়েলের উপস্থিতি জোরদার যে কৌশলগত ভুল তা একদিন এসব আরব দেশ বুঝতে পারবে।