ইরানের সর্বোচ্চ নেতা খামেনির মৃত্যুর পর কে হচ্ছে তার উত্তরসূরি ?

Ayatollah Ali Khamenei takes ill

ইরানে রাজনৈতিক ক্ষমতার শীর্ষ পর্যায়ে রয়েছে ৮ ১ বছর বয়সী আয়াতুল্লাহ আলী খামেনি। সম্প্রতি গুজব ছড়িয়েছে ইরানের সর্বোচ্চ ক্ষমতাধর এই নেতা অসুস্থ। তবে তিনি মারা গেলে বা অসুস্থ থাকলে তার উত্তরসূরি কে হবেন, তা নিয়ে বেশ জল্পনা চলছে।

ইরানের ১৯৭৯ সালের ইসলামী বিপ্লবের পর আয়াতুল্লাহ আলী খামেনি দেশটির সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতার পদে আসীন দ্বিতীয় ব্যক্তি। তবে এই পদে কে থাকবেন তা নির্ধারণ করেন বিশেষজ্ঞমণ্ডলী বা অ্যাসেম্বলি অফ এক্সপার্টস নামে ৮৮ জন ধর্মীয় নেতার একটি পরিষদ।

গুজব আছে যে, সম্ভাব্য প্রার্থীদের একটি তালিকা তৈরি করা হয়েছে যা চূড়ান্তভাবে গোপনীয়। ওই তালিকায় কাদের নাম আছে তা জানার দাবিও কেউ করেন না।

তবে পর্যবেক্ষণের ভিত্তিতে বা বিভিন্ন ঘটনার নিরিখে বলা হচ্ছে যে, আলী খামেনির পছন্দের উত্তরসূরি হতে পারেন তার ছেলে মোজতাবা অথবা বিচার বিভাগের প্রধান ইব্রাহিম রাইসি।

তবে দেশটির এক সাংবাদিক জানান, খামেনির স্বাস্থ্যের অবনতির কারণে তার ৫১ বছর বয়সি ছেলে মোজতাবা হোসেইনি খামেনিকে ক্ষমতা হস্তান্তর করা হতে পারে।

এদিকে, রাইসির পূর্বসূরি সাদেক লারিজানি ও বর্তমান প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি ২ জনেই পরবর্তী সর্বোচ্চ নেতার দায়িত্ব গ্রহণে আগ্রহী বলে ধারণা করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালে ক্যান্সার হওয়ার কারণে একটি অপারেশন হয়েছিল ইরানের সর্বোচ্চ নেতার। তারপর থেকেই তার বিষয়ে খুব একটা খোঁজ-খবর পাওয়া যায় না। বেশিরভাগ সময়ই লোকচক্ষুর অন্তরালে থাকেন তিনি। ফলে তার স্বাস্থ্যের অবস্থা নিয়ে রহস্য তৈরি হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ  আমিরাতের কাছে বিপুল অস্ত্র বিক্রিতে সফল ট্রাম্প, উত্তেজনা চরমে

এদিকে, ইরানের সর্বোচ্চ পরমাণু বিজ্ঞানী মোহসেন ফাখরিজাদেহর গুপ্তহত্যার পর দেশজুড়ে উত্তেজনা তৈরি হয়েছে। যেকোনো মুহূর্তে যুদ্ধ লাগার সম্ভাবনাও রয়েছে। সেই কারণেই মোজতাবা খামেনিকে খুব দ্রুত ক্ষমতায় বসানোর চেষ্টা করছে।

 

সূত্র : দ্য জেরুজালেম পোস্ট