আবরার হত্যাঃআসামীদের গোপন কথোপকথন ফাঁস

Abara murder

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে মারধর করে হল ছাড়া করার সিদ্ধান্ত আগেই নিয়েছিল বুয়েট ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

হত্যাকাণ্ডে গ্রেফতার হওয়া বুয়েট শাখার ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের ফেসবুক মেসেঞ্জারে গোপন কথোপকথনের বিষয়টি ফাঁস হয়েছে। ছাত্রলীগের এই নেতারা মেসেঞ্জারে গ্রুপ খুলে নিজেদের মধ্যেআগে থেকেই কথা বলতেন।

গত শনিবার দুপুর ১২টা ৪৭ মিনিটে বুয়েট ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মেহেদী হাসান ওরফে রবীন গ্রুপে লেখেন, আবরারকে মেরে বের করে দিতে হবে। সে শিবির করে। মনিরুজ্জামান নামে একজন মেহেদীর কথায় সাড়া দেয়।

পরে মেহেদী মনিরুজ্জামানকে বলে, আবরারের রুমমেট মিজানের সঙ্গে পরামর্শ করার জন্য। এ জন্য মেহেদী তাকে দু’দিন সময় দেয়ার কথা বলে। পরে রবিবার রাতে আবরারকে ধরে আনা হয়।

আরও পড়ুনঃ আবরার হত্যাঃ অবশেষে সেই ছাত্রলীগ নেতা অমিত সাহা গ্রেফতার

রাত দেড়টার দিকেও মেসেঞ্জার গ্রুপে আবরারকে ধরে আনার বিষয়ে আলোচনা হয়। কেউ একজন আবরারকে ধরে আনার বিষয়ে জিজ্ঞাসা করে।

তখন বুয়েট ছাত্রলীগের উপ-সমাজসেবা বিষয়ক সম্পাদক ইফতি মোশাররফ (গ্রেফতারের পর আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছনি) বলে, আবরার মরে যাচ্ছে। মাইর বেশি হয়ে গেছে।

এরপরই না ফেরার দেশে পাড়ি জমান মেধাবী আবরার। আবারের নিথর দেহ পড়ে ছিল সিঁড়ির কাছে। হলের ডাক্তারই তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

0 Shares
  • 0 Facebook
  • Twitter
  • LinkedIn
  • Mix
  • Email
  • Print
  • Copy Link
  • More Networks
Copy link
Powered by Social Snap