নিজের ছেলেকে রান আউট করালন বাবা!

বাবা-ছেলের একসঙ্গে খেলার ঘটনা বেশ বিরলই। অবাক করার মত হলেও সত্য কিছু ক্রিকেটার হয়তো খেলোয়াড়ি জীবনের শেষ দিকে গিয়ে কিছুটা সুযোগ পান।

এক্ষেত্রে ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান কিংবদন্তি শিবনারায়ণ চন্দরপল নিজেকে ভাগ্যবান ভাবতেই পারেন। তার ছেলের সাথে যে তিনি প্রায় নিয়মিতই একসঙ্গে খেলছেন।

গত মৌসুমে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ঘরোয়া প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে গায়ানার হয়ে একসঙ্গে ব্যাটিং করেছেন শিবনারায়ণ চন্দরপল ও তার ছেলে ত্যাগনারায়ণ চন্দরপল।
একই ইনিংসে বাপ-বেটার ফিফটি করার কীর্তিও আছে। তবে সম্ভবত এই প্রথম একসঙ্গে বাপ-বেটার ব্যাটিং বিশ্বজুড়ে সম্প্রচারিত হলো চলমান সুপার-৫০ কাপে।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের ঘরোয়া ৫০ ওভারের এই প্রতিযোগিতার সেমিফাইনালে বৃহস্পতিবার রাতে উইন্ডওয়ার্ড আইসল্যান্ডের বিপক্ষে একসঙ্গে ব্যাটিং করেছেন ৪৩ বছর বয়সী শিবনারায়ণ ও ২১ বছর বয়সী ত্যাগনারায়ণ। ২৮৪ রান তাড়ায় ওপেনিংয়ে নেমেছিলেন ত্যাগনারায়ণ ও চন্দরপল হেমাজ। প্রথম ওভারে হেমাজের বিদায়ের পর ছেলে ত্যাগনারায়ণের সঙ্গে যোগ দেন বাবা শিবনারায়ণ।

যদিও বাপ-বেটার জুটিটা বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি, ভেঙেছে ১৩ রানে। পঞ্চম ওভারে পেসার রায়ান জনের বলে স্ট্রেইট ড্রাইভ করেছিলেন শিবনারায়ণ। বল থামানোর চেষ্টা করেন বোলার জন।

তার বুটে লেগে বল ভেঙে দেয় নন-স্ট্রাইক প্রান্তের স্টাম্প। বেল যখন স্টাম্প থেকে ওপরে উঠে গেছে, নন স্ট্রাইকে থাকা ত্যাগনারায়ণের ব্যাট তখন ক্রিজের বাইরে, রান আউট!

১২ বলে ১২ রান করে রান আউট হয়ে ত্যাগনারায়ণকে ফিরতে হয় সাজঘরে। ত্যাগনারায়ণের রান আউটে সরাসরি অবদান তার বাবারই! পরে বাবা আউট হন ৩৪ রান করে। বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচটি গায়ানা হেরে যাওয়ায় ফাইনালে আর একসঙ্গে খেলা হচ্ছে না বাপ-বেটার।

loading...

নামাজের সময়সুচী

ফজর ভোর 00:00 মিনিট
যোহর বেলা 00:00 মিনিট
আছর বিকেল 00:00 মিনিট
মাগরীব সন্ধ্যা 00:00 মিনিট
এশা রাত 00:00 মিনিট
সেহরী ভোর 0:00
ইফতার সন্ধ্যা 0.00

আর্কাইভ

নির্বাচিত সংবাদ